৩ দফা দাবি আদায়ে নার্সেস সংগ্রাম পরিষদের ৭ দিনের আল্টিমেটাম

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৩৩ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

তিন দফা দাবি আদায়ে আগামী সাত দিনের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে বাংলাদেশ নার্সেস সংগ্রাম পরিষদ। অন্যথায় ৩ মার্চ মানববন্ধন, ৭ মার্চ প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ, ১০ মার্চ সারা দেশব্যাপী প্রত্যেক স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে একযোগে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন এবং ১৩ মার্চ দেশব্যাপী প্রত্যেক স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক জোনের সামনে একযোগে এক ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে নার্সেস সংগ্রাম পরিষদ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে নার্সেস সংগ্রাম পরিষদ প্রধান ও বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএনএ) সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) ইসমত আরা পারভীন এসব কর্মসূচির কথা জানান।

তাদের দাবিগুলো হলো- জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নার্সিং পেশার মান রক্ষার লক্ষ্যে কোনোক্রমেই কারিগরি বোর্ডের অধীন প্যাশেন্ট কেয়ার টেকনোলজিস্টদের নার্স হিসেবে নিবন্ধন না দেয়া; পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকাদের ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি সমমান না করা এবং গত ৫ ফেব্রুয়ারি ব্যাচেলর অব নার্সিং সায়েন্স, ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারি, ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি ছাত্র-ছাত্রীদের নির্ধারিত কম্প্রিহেনসিভ লাইসেন্সিং পরীক্ষার স্থগিতাদেশ অবিলম্বে প্রত্যাহার করে কম্প্রিহেনসিভ লাইসেন্সিং পরীক্ষার ব্যবস্থা করা।

বিএনএ সভাপতি বলেন, বেধে দেয়া নির্ধারিত সময়ের মধ্যে যদি সৃষ্ট জটিলতা নিরসনে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কোনো কার্যকর ভূমিকা গ্রহণ না করেন তবে আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবেন। সেই সঙ্গে এ বিষয়ে সৃষ্ট জটিলতা নিরসনে বিলম্ব হওয়ার কারণে সৃষ্ট সব পরিস্থিতির সম্পূর্ণ দায় সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও ব্যক্তিকেই বহন করতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের (স্বানাপ) আনিসুর রহমান, বিএনএ ঢামেক শাখার সভাপতি মোহাম্মদ কামাল হোসেন পাটোয়ারী, বিএনএ ঢামেক শাখার মহাসচিব মো. আসাদুজ্জামান জুয়েল, স্বানাপের মহাসচিব ইকবাল হোসেন সবুজ।

এমইউ/এআরএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]