বনানীর সেই শিশুকে হত্যা করেছে সৎ বাবা, অভিযোগ মায়ের

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৪ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
অভিযুক্ত সৎ বাবা মহিউদ্দিন

বনানীর কড়াইল বস্তি এলাকায় শিশু তানজিলা (৩) মৃত্যুর ঘটনায় তার মা জরিনা বেগম অভিযোগ করেছেন, ‘তার সৎ বাবা (জরিনার স্বামী) মহিউদ্দিন তাকে হত্যা করেছে। আমার প্রথম স্বামীর সঙ্গে সাত মাস আগে আমার ডিভোর্স হয়ে যায়। সে মাদকাসক্ত ছিল। এরপর ছয় মাস আগে মহিউদ্দিনের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘তিন দিন ধরে আমার সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হচ্ছিল। এ কারণে আমি রাগ করে সকালে আমার বোনের বাসায় চলে যাই। আমি বাসা-বাড়িতে কাজ করি। আমি ফোনে খবর পেয়ে দ্রুত ছুটে আসি। এসে শুনি মহিউদ্দিন আমার মেয়েকে হত্যা করেছে।’

তানজিলা (৩) নামের ওই শিশুর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে শনিবার। সকালে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত শিশুর বাবা মহিউদ্দিন তখন বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাসার দ্বিতীয় তলার সিঁড়ি পাশে তানজিলাকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখি। তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে ১০টার দিকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।’

কর্তব্যরত চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ‘নিহত শিশুর গালে কামড়ের দাগ রয়েছে এবং যৌনাঙ্গ খোলা রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে কারো পাশবিক নির্যাতনে তার মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাযর বিস্তারিত জানার জন্য শিশুটির বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনের রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।’

এমএইচআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]