কর্মক্ষেত্রে সহিংসতা ও হয়রানি বন্ধে ‘নারী সমাবেশ’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৪৯ পিএম, ০৫ মার্চ ২০২১

কর্মক্ষেত্রে নারীর প্রতি সহিংসতা ও হয়রানির প্রতিরোধের দাবিতে নারী সমাবেশ ও মানববন্ধন করা হয়েছে। শুক্রবার (৫ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ন্যাশনাল ওয়ার্কার্স ইউনিটি সেন্টার ও গ্রিন বাংলা গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশনের যৌথ উদ্যোগে এসব কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

নারী সমাবেশে বক্তারা বলেন, আজ কর্মক্ষেত্রে শ্রমজীবী নারীদের প্রতি হয়রানি, নির্যাতন নিত্যদিনের ঘটনা। তবে দিন দিন এটি আরও বাড়ছে। কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকদের ওপর সহিংসতা, হয়রানি তাদেরকে নাজুক করে ফেলে। এর ফলে শ্রমিকদের মধ্যে এক ধরনের মানসিক চাপ তৈরি হয় এবং তারা কর্মস্পৃহা হারিয়ে ফেলেন। একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানের উৎপাদনশীলতাও হ্রাস পাচ্ছে।

তারা আরও বলেন, অবিলম্বে কর্মক্ষেত্রে নারী-পুরুষ শ্রমিক হয়রানি ও নির্যাতন প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট পক্ষসমূহের সুপারিশমালা নির্ধারণ করতে হবে। এজন্য কর্মক্ষেত্রে সহিংসতা ও হয়রানি বন্ধে আইএলও কনভেনশন ১৯০-এ অনুস্বাক্ষর করার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানানো হয়।

jagonews24

কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন গ্রিন বাংলা গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের সভাপতি সুলতানা বেগম। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস, যুগ্ম সম্পাদক খাদিজা রহমান, সহ-সভাপতি সেলিনা হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফরিদ উদ্দীন, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক রোজিনা আক্তার সুমি, নারীবিষয়ক সম্পাদক মাকসুদা আক্তার প্রমুখ।

সংগঠন দু’টির পক্ষ থেকে কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি প্রতিরোধে ৫টি দাবি তুলে ধরা হয়। দাবিগুলো হলো- আইএলও কনভেনশন ১৯০ অনুসমর্থন, যৌন হয়রানি প্রতিরোধে হাইকোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়ন, কর্মক্ষেত্র ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ কমিটি গঠন, কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ আইন প্রণয়ন, মাতৃত্বকালীন ছুটি ছয়মাস ঘোষণা করা।

এওয়াইএইচ/এএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]