বাংলাদেশের ক্লিন এনার্জিতে বিনিয়োগ করতে চায় সুইডেন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৮ পিএম, ১৫ মার্চ ২০২১

বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে বিশেষ করে ক্লিন এনার্জিতে বিনিয়োগ করতে চায় সুইডেন। সোমবার (১৫ মার্চ) দেশটির আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগিতা বিষয়ক মন্ত্রী পের ওলসন ফ্রিধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাতে এ আগ্রহ প্রকাশ করেন।

ফ্রিধ বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের শক্তি খাতে বিশেষত ক্লিন এনার্জিতে বিনিয়োগ করতে চাই।’

বৈঠকের পর সাংবাদিকদের বিস্তারিত ব্রিফ করেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম। তিনি বলেন, ওলসন ফ্রিধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশের চমকপ্রদ উন্নয়নের জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন। তার দেশ বাংলাদেশের উন্নয়ন প্রচেষ্টায় তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে চায়। বাংলাদেশের সঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতে তার দেশের অংশীদারিত্বেও সন্তোষ প্রকাশ করেন ওলসন ফ্রিধ।

বাংলাদেশের তৈরি পোশাক সম্পর্কে সুইডেনের এই মন্ত্রী বলেন, সুইডেন এবং বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই পারষ্পরিক স্বার্থে এ বিষয়ে বাণিজ্য করছে। এ সময় নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে আরও পদক্ষেপ গ্রহণের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন ফ্রিধ। তিনি বলেন, তার দেশের শ্রম খাতে নারীদের আরও অংশগ্রহণের প্রয়োজন রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করে ওলসন ফ্রিধ বলেন, যেভাবে বাংলাদেশ সফলভাবে করোনা পরিস্থিতি সামলেছে, এতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর অত্যন্ত সাহসী একটি দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তার সরকারের অগ্রাধিকার হলো অর্থনৈতিক, স্বাস্থ্যসেবা এবং শিক্ষা খাতের উন্নয়নের পাশাপাশি অবকাঠামো উন্নয়ন করা। পাশাপাশি সবার জন্য খাদ্য নিশ্চিতকরণ। এজন্য সরকার সামাজিক নিরাপত্তা বলয়ের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

প্রাথমিক শিক্ষার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যে প্রাথমিক স্তরে প্রায় শতভাগ বিদ্যালয়ে ভর্তির সক্ষমতা অর্জন করেছে এবং কিছু ক্ষেত্রে ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের ভর্তির সংখ্যা বেশি। সরকার রক্ষণশীল সমাজে থেকেও প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নকে ত্বরান্বিত করেছে।

বাংলাদেশের সরকারপ্রধান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আইন কার্যকর করার মাধ্যমে বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করেছিলেন।

দেশে ১শ’ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার পদক্ষেপের উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প স্থাপনে গুরুত্বারোপ করেছে।

এ সময় কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রশাসনের কর্মকর্তারা, সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ, বিজিবি সদস্যরা এবং তার দলের নেতাকর্মীরা সবাই এই পরিস্থিতিতে কাজ করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস এবং ঢাকায় সুইডেনের রাষ্ট্রদূত আলেকজান্দ্রা বার্গ ভন লিন্ডা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এসইউজে/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]