স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে চট্টগ্রামে অভিযান-জরিমানা আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৭:৪৮ পিএম, ০৮ এপ্রিল ২০২১

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশব্যাপী ঘোষিত বিধিনিষেধের চতুর্থ দিনে চট্টগ্রাম মহানগরে অভিযান চালিয়েছে জেলা প্রশাসনের একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি জনসাধারণে মধ্যে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) জেলা প্রশাসনের ছয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নগরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসব অভিযানে ২২ মামলায় মোট ৪৬ হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। একই সঙ্গে সচেতনতার জন্য প্রায় সাড়ে চার হাজার মাস্কও বিতরণ করা হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ নগরের চকবাজার, জিইসি, ওয়াসা এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তিন মামলায় ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিবেদিতা চাকমা কোতোয়ালি ও সদরঘাট এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আট মামলায় তিন হাজার ২০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

jagonews24

একই সময়ে পাহাড়তলী এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এক মামলায় এক হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং কোর্ট বিল্ডিং, ফিরিঙ্গি বাজার, টেরি বাজার এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১০ মামলায় নয় হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ইনামুল হাছান ডবলমুরিং এলাকায় এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিল্লুর রহমান পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে স্বাস্থ্যবিধি পালনে জনসাধারণকে নির্দেশনা দেন।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক বলেন, ‘সরকার ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নে আজ নগরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি সচেতনতার জন্য মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।’

মিজানুর রহমান/ইএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]