মুক্তিপণ: অভিযোগ প্রমাণিত হলে র‌্যাবের ৪ জনের বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৪ পিএম, ০৯ এপ্রিল ২০২১
ফাইল ছবি

রাজধানীর হাতিরঝিলে এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে চাঁদা আদায়ের চেষ্টার অভিযোগে পুলিশের হাতে আটক হওয়া র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) চার সদস্যের বিষয়ে বাহিনীটির সদরদফতরের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আটক র‌্যাব সদস্যরা এমন অপরাদে জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাদের কারাদণ্ড এমনকি চাকরিচ্যুতিও হতে পারে।

শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে র‌্যাব সদর দফতরের ওই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জাগো নিউজকে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ডিএমপি কমিশনারের বক্তব্য এবং সংবাদপত্রের মাধ্যমে ঘটনাটি সম্পর্কে র‌্যাব ওয়াকিবহাল হয়েছে। র‌্যাব তদন্ত করছে, তদন্তে র‌্যাব সদস্যদের জড়িত থাকার প্রমাণ মিললে কিংবা তারা দোষী প্রমাণিত হলে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, একটি বড় বাহিনীর দু’একজনের জন্য র‌্যাব কলুষিত হোক, এটা আমরা কেউই চাই না। র‌্যাবের একশ’জন যদি অপরাধ করেন, তাহলে একশ’জনকেই শাস্তির আওতায় আনা হয়। এক্ষেত্রে অন্যায়কারী সদস্যরা চাকরিচ্যুত হয়, এমনকি কারাদণ্ডিতও হয়। র‌্যাবে চাকরি করা অবস্থায় কেউ যদি অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়েন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে র‌্যাব আগে থেকেই কঠোর আইনি ব্যবস্থা নিয়ে আসছে। অন্যায় করে র‌্যাবে থাকার সুযোগ নেই।

এর আগে দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে চাঁদা আদায়ের চেষ্টার অভিযোগে র‌্যাবের চার সদস্যকে আটক করে ডিএমপির হাতিরঝিল থানা পুলিশ।

তিনি বলেন, ‘তারা এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে চাঁদা আদায়ের চেষ্টা করেন। ওই ব্যক্তির বোন খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দু’জনকে আটক করে। পরে আরও দু’জনকে আটক করা হয়। আরও দু’জন পলাতক রয়েছে।’

জানা গেছে, আটক চারজনের মধ্যে তিনজন সেনাবাহিনীর ও একজন বিমানবাহিনীর সদস্য। পলাতকদের মধ্যে একজন বিজিবি সদস্য। অন্যজন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কোনো বাহিনীর সদস্য নন। তিনি সাধারণ মানুষ।

চাঁদা আদায়ের অভিযোগে আটক চারজনের বিরুদ্ধে থানায় নিয়মিত মামলা হয়েছে বলেও জানান ডিএমপি কমিশনার।

টিটি/এআরএ/এইচএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]