রফিক আহাম্মদের মৃত্যুতে মন্ত্রী, উপমন্ত্রী ও সচিবের শোক

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:২১ এএম, ১০ এপ্রিল ২০২১

পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. এ কে এম রফিক আহাম্মদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, সচিব জিয়াউল হাসান এবং মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

শনিবার (১০ এপ্রির) এক শোকবার্তায় পরিবেশ মন্ত্রী বলেন, তার মতো একজন সদালাপী, ধার্মিক, সৎ, দক্ষ এবং আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্বের কর্মকর্তা বিরল। কর্মজীবনে তিনি দেশের পরিবেশ সংরক্ষণ এবং জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় দেশে-বিদেশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করার কারণে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

পৃথক এক শোকবার্তায় উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার বলেন, তার মতো অমায়িক ও কর্মনিষ্ঠ কর্মকর্তার মৃত্যু দেশের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব জিয়াউল হাসান বলেন, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সব কর্মকর্তা-কর্মচারী তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা ও সহমর্মিতা জ্ঞাপন করছে এবং পরম করুণাময়ের কাছে তার মাগফিরাত ও বিদেহী আত্মার চিরশান্তি কামনা করছে। আল্লাহ তাকে জান্নাত নসিব করুন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোরে মারা যান ড. এ কে এম র‌ফিক আহাম্মদ

তিনি বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের ১০ম ব্যাচের কর্মকর্তা হিসেবে ১৯৯১ সালে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২২ মে পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক হিসেবে যোগদানের আগে তিনি দুবাইয়ে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল অফিসে কমার্শিয়াল কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে তিনি পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রীর একান্ত সচিব ও সিনিয়র সচিব এবং পরিবেশ অধিদফতরের পরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। তিনি স্ত্রী ও দুই ছেলে রেখে গেছেন।

এমইউ/এসএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]