লকডাউনে স্বাস্থ্যসেবাসহ বাজার তদারকি চলবে : তাপস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৩৫ পিএম, ১৩ এপ্রিল ২০২১

সর্বাত্মক লকডাউনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) দুটি হাসপাতাল ও পাঁচটি নগর মাতৃসদনে করোনা টিকাদান কার্যক্রমসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে নগর ভবনের বুড়িগঙ্গা হলে করোনাভাইরাস বিস্তার রোধে 'সর্বাত্মক লকডাউন' বাস্তবায়ন এবং করপোরেশনের জরুরি সেবা কার্যক্রম সংক্রান্ত এক সভায় এই কথা বলেন মেয়র। এ সময় তিনি স্বাস্থ্যবিধি তদারকি এবং মশার লার্ভার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে বলে জানান।

মেয়র বলেন, 'এই মহামারিতে ঢাকাবাসীকে সেবা দেয়ার জন্য আমাদের মহানগর জেনারেল হাসপাতাল প্রস্তুত রয়েছে। সেখানে করোনা পরীক্ষা করা হয় এবং তার সঙ্গে সঙ্গে কোভিড-১৯ টিকা প্রদান করা হয়। এ ছাড়াও মহানগর শিশু হাসপাতালে করোনা টিকা প্রদান চলমান থাকবে। একইসঙ্গে আমাদের যে পাঁচটি নগর মাতৃসদন রয়েছে সেখানেও টিকা প্রদান কার্যক্রম চলমান থাকবে। সুতরাং আমি ঢাকাবাসীর প্রতি অনুরোধ করব, আপনাদের যার যখন বার্তা চলে আসবে, আপনারা সঙ্গে সঙ্গে টিকা গ্রহণ করবেন।'

এ সময় করপোরেশনের অন্যান্য স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম চলমান থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, 'আমাদের স্বাস্থ্য সেবার মধ্যে যে কার্যক্রম রয়েছে, সেগুলো চলমান থাকবে। আমাদের নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও আঞ্চলিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোর মাধ্যমে শিশুদের জন্য যে ইপিআই টিকা প্রদান করা হয়, সেগুলো চলমান থাকবে। মায়েদের জন্য যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয় তাও চলমান থাকবে।'

এডিস মশার লার্ভা এবং লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি ও বিধিনিষেধ প্রয়োগে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে জানিয়ে মেয়র বলেন, 'আমাদের আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তারা (আনিক) ও সম্পত্তি বিভাগের মাধ্যমে ১০টি অঞ্চলে ডেঙ্গুর লার্ভা নিয়ন্ত্রণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। এই বিধিনিষেধগুলো (লকডাউনের বিধিনিষেধ) যাতে বাস্তবায়ন হয়, পরিপালন হয়, বাজারগুলো যাতে ৩টার মধ্যে বন্ধ হয়ে যায়, সকাল ৯টার আগে না খোলা-এগুলো সবকিছুই তারা (আনিক ও সম্পত্তি বিভাগ) তদারকি করবে, পরিচালিত করবে।'

বৈঠকে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমডোর মো. বদরুল আমিন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ডা. শরীফ আহমেদ, সচিব আকরামুজ্জামান, আনিকবৃন্দ, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) মো. জাফর আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এমএমএ/জেডএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]