কপিরাইট আইন যুগোপযোগী করতে দ্রুত সংশোধনের আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:১১ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২১

দেশের শিল্প, সাহিত্য সুরক্ষায় কপিরাইট আইন যুগোপযোগী করতে দ্রুত সংশোধনের আহ্বান জানিয়েছেন দেশবরেণ্য শিল্পীরা।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) বিকেলে আন্তর্জাতিক কপিরাইট দিবস উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ কপিরাইট অফিসের উদ্যোগে ‘মেধাসম্পদ সুরক্ষায় কপিরাইটের গুরুত্ব’ শীর্ষক ভার্চুয়াল সেমিনার এ আহ্বান জানানো হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, অংশীজনদের নিজেদের স্বার্থ রক্ষায় সোচ্চার হতে হবে এবং নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসতে হবে।

কপিরাইট আইন সংশোধনের বিষয়ে তিনি বলেন, ইতোমধ্যে উক্ত আইনের খসড়া চুড়ান্ত করে তা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদের অনুমোদনের পর পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

অনুষ্ঠানে আলোচনায় অংশগ্রহণ করে বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সহ-সভাপতি খান মাহবুব বলেন, কপিরাইট আইন আরো যুগোপযোগী করার লক্ষ্যে অতি দ্রুত আইনটি সংশোধন করা প্রয়োজন।

মিউজিক কম্পোজার্স সোসাইটি বাংলাদেশের সভাপতি মো. নকিব খান সংগীত সংশ্লিষ্ট তিনটি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে প্রতিমন্ত্রীর মহোদয়ের কাছে যে ১৫ টি প্রস্তাব প্রদান করা হয়েছিল, তার বাস্তবায়ন অগ্রগতি জানতে চান।

সিঙ্গার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের যুগ্ম আহ্বায়ক কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, বর্তমান কোভিড-১৯ মহামারি বিবেচনায় এনে সংগীত সংশ্লিষ্টদের প্রতি বিশেষ নজর দেয়া প্রয়োজন।

গীতিকবি সংঘের সাধারণ সম্পাদক যুগ্ম কবির বকুল সংগীত সংশ্লিষ্ট তিনটি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে প্রতিমন্ত্রীর কাছে দাখিলকৃত ১৫টি প্রস্তাব বাস্তবায়নের জন্য গুরুত্ব আরোপ করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ কপিরাইট অফিসের রেজিস্ট্রার অব কপিরাইটস জাফর রাজা চৌধুরী বলেন, সংগীত সংশ্লিষ্ট তিনটি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে প্রতিমন্ত্রীর কাছে দাখিলকৃত ১৫টি প্রস্তাব বাস্তবায়নের জন্য কমিটি গঠন করেছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। সেই কমিটি ইতোমধ্যে দুটি সভা করেছে। সভায় ৩টি সংগঠনের কাছে কিছু রেফারেন্স চাওয়া হয়েছে। রেফারেন্সসহ চলমান লকডাউন শেষ হওয়ার পরের সপ্তাহে চুড়ান্ত সভা করে প্রস্তাব প্রতিমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করা হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতি ও কর্মকে যুগ যুগ ধরে নান্দনিকভাবে উপস্থাপনের মহতী প্রয়াসে এক দৃষ্টিনন্দন সমাধিসৌধের নকশা প্রণয়নের জন্য ভিত্তি স্থপতিবৃন্দ লিমিটেডকে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত প্রতিচ্ছবি অঙ্কন ও সংরক্ষণের মহতী প্রয়াসের স্বীকৃতি স্বরূপ হাবিবুল্লাহ আল ইমরানকে মেধাসম্পদ সুরক্ষা সম্মাননা ২০২০-এ অভিষিক্ত করা হয়।

দেশের একমাত্র আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে সৃজিত মেধাসম্পদ সুরক্ষায় সচেতন ও দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার জন্য ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডকে ও সর্বোচ্চ সংখ্যক কপিরাইট রেজিস্ট্রেশন করায় বসুন্ধরা গ্রুপকে মেধাসম্পদ সুরক্ষা সম্মাননা ২০২০ প্রদান করা হয়।

আর মেধাসম্পদ সুরক্ষা সম্মাননা-২০২১ এ অভিষিক্ত করা হয় আরও ৪ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে। তারা হলেন- শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবয়ব ফুটিয়ে তোলার অনবদ্য ও অনন্য ধারণা উদ্ভাবন এবং বাস্তবায়নের জন্য কে এস এম মোস্তাফিজুর রহমান ও মু.ফয়জুল আলম সিদ্দিক; দেশের আঞ্চলিক গানের চর্চা, বিকাশ ও সুরক্ষায় বিশেষ অবদান রাখার জন্য স্বনামধন্য শিল্পগোষ্ঠী পিএইচপি গ্রুপ, দেশের লুপ্তপ্রায় লোকসংগীতকে নান্দনিক উপস্থাপনের মাধ্যমে বর্তমান প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেয়ার মহৎ পরিকল্পনা ও কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য আইপিডিসিকেএবং মায়ের ভাষায় কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নের মাধ্যমে সফটওয়্যার সংশ্লিষ্ট উদ্ভাবন কার্যক্রমে সুদক্ষ কর্মী তৈরির উদ্যোগ গ্রহণের জন্য মাস্টার একাডেমির প্রধান নির্বাহী জনাব মুস্তাইন বিল্লাহকে মেধাসম্পদ সুরক্ষা সম্মাননা ২০২১-এ অভিষিক্ত করা হয়।

সেমিনারের বিশেষ অতিথি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফীন বলেন, কপিরাইট আইনটি যুগোপযোগী ও হালনাগাদের লক্ষ্যে খসড়া চূড়ান্ত করে তা ইতোমধ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হয়েছে। তিনি সংশ্লিষ্ট অংশীজনদেরকে নিজেদের স্বার্থ রক্ষায় নিজেদেরই ঐক্যব্ধ হয়ে বাংলাদেশ কপিরাইট অফিসের সংগে কাজ করার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন।

এসএম/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]