সেই সুলতানকে কারাগারে থাকতে হবে ১৯ দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২৪ পিএম, ০৫ মে ২০২১ | আপডেট: ০৭:৫২ পিএম, ১২ মে ২০২১

রাজধানীর পুরান ঢাকার বংশালে রিকশাচালককে মারধরের ঘটনায় গ্রেফতার সেই সুলতান আহমেদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আসামির জামিন শুনানির পরবর্তী তারিখ আগামী ২৩ মে ধার্য করেছেন আদালত। অর্থাৎ গ্রেফতারকালীন সময় থেকে পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত অভিযুক্ত সুলতান আহমেদকে ১৯ দিন কারাগারেই থাকতে হবে। বুধবার (৫ মে) ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

রাতে বংশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিন ফকির জাগো নিউজকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, গতকাল (মঙ্গলবার) রিকশাচালককে মারধরের অভিযোগে সুলতান আহমেদকে আটক করা হয়। আজ বুধবার আদালতে হাজির করলে আদালত শুনানির পরবর্তী তারিখ ২৩ মে ধার্য করেন।

তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে সুলতান আহমেদ অজ্ঞাত রিকশাচালককে মারধর করেছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন। ১৯ দিন তাকে কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকার নির্দেশ দেন আদালত। এ সময়ের মধ্যে ভুক্তভোগী ওই রিকশাচালককে খুঁজে বের করার জন্য আদালত পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন। রিকশাচালকের খোঁজ পাওয়া গেলে তার অভিযোগ অনুসারে পরবর্তী সময়ে আইন অনুসারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ওসি শাহিন ফকির আরও বলেন, ভিডিওটি দেখে আমি চমকে গেছি। একের পর এক থাপ্পড় দিতে থাকেন রিকশাচালককে। ভিডিওতে দেখা গেছে, রিকশাচালক মার খাচ্ছেন, তবুও তিনি সরকারি নির্দেশনায় করোনা প্রতিরোধের জন্য বারবার মাস্ক পরতে থাকেন। কিন্তু স্থানীয় প্রভাবশালী সুলতান আহমেদ নামে ওই ব্যক্তির মুখে সেসময় মাস্ক ছিল না। এতেই ওই রিকশাচালককে স্যালুট দেয়া উচিত।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম বলেন, গত ৪ মে দুপুরে বংশাল থানা এলাকায় অজ্ঞাত একজন ব্যক্তি এক অসহায় রিকশাচালকের ওপর অমানবিক নির্যাতন চালান। রিকশাচালককে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও অনবরত চড়-থাপ্পড় মেরে আহত করার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

ভিডিওটি পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষসহ বংশাল থানা ওসির দৃষ্টিগোচরে আসে। যার ফলে বংশাল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলের আশপাশ থেকে মারধরকারী ব্যক্তিকে খুঁজে বের করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে তাকে আটক করে।

এডিসি ইফতেখায়রুল ইসলাম আরও বলেন, পুরো বিষয়টি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের নজরে এনেছেন আমাদের অনেক সম্মানিত ফেসবুক ব্যবহারকারী। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার প্রয়াসকে ডিএমপি কৃতজ্ঞচিত্তে সাধুবাদ জানায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ঋণাত্মক ব্যবহারের প্রভাব থেকে বের হয়ে এভাবেই ধনাত্মক বলয় তৈরি করে, আগামীতে একটি সুন্দর সমাজ প্রতিষ্ঠায় আমরা সবাই মিলে কাজ করতে পারব বলে বিশ্বাস করি।

ভিডিওতে দেখা যায়, মঙ্গলবার (৪ মে) দুপুর দেড়টার দিকে বংশালে এক ব্যক্তি এক রিকশাওয়ালাকে থাপ্পড় মারছেন এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছেন। মারধরের একপর্যায়ে রিকশাওয়ালা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এবং জ্ঞান হারান। বিষয়টি দেখতে পেয়ে পাশ থেকে লোকজন এগিয়ে গিয়ে ওই রিকশাওয়ালাকে উদ্ধার করে।

ভিডিওটি দেখামাত্র মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং ওসি বংশাল মো. শাহীন ফকিরকে নির্দেশনা দেন। নির্যাতনকারীকে খুঁজে বের করে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে বলেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে দ্রুততম সময়ের ব্যবধানে ওই ব্যক্তিকে আটক করে বংশাল থানা পুলিশ।

টিটি/এএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]