ডিএনসিসির দ্বিতীয়দিনের অভিযানে ২ লাখ ৬২ হাজার টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৩৩ পিএম, ০৬ মে ২০২১

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দোকানপাট ও শপিংমলে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে ঝটিকা অভিযান অব্যাহত রেখেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) দ্বিতীয়দিনের অভিযানে ৫৩টি মামলায় দুই লাখ ৬২ হাজার ৭৫০ টাকা জরিমানা করেছেন ডিএনসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ডিএনসিসির জনসংযোগ বিভাগ সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে ডিএনসিসি মেয়র রাজধানীর আসাদগেট ও মোহাম্মদপুর এলাকায় দোকানপাট ও শপিংমলে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালন হচ্ছে কি-না তা সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। এ সময় আতিকুল ইসলাম বলেন, নিজে সুরক্ষিত থাকলে পরিবারসহ দেশ সুরক্ষিত থাকবে। তাই আমাদের সকলকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে হবে। যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে দোকানপাট ও শপিংমল বন্ধ করে দেয়া হবে এবং কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

jagonews24.com

এ সময় ডিএনসিসির ১ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন, পারসিয়া সুলতানা প্রিয়াংকা পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ২৩টি মামলায় ৭০ হাজার ১০০ টাকা, ২ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নাসির উদ্দিন মাহমুদ পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত তিনটি মামলায় ১৪ হাজার টাকা, ৩ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল বাকী, মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ মিয়া পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত চারটি মামলায় ৫৫ হাজার ২০০ টাকা, ৪ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সালেহা বিনতে সিরাজ পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত একটি মামলায় ৫ হাজার টাকা, ৬ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরিন পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ১১টি মামলায় ৫ হাজার ৪০০ টাকা, ৮ নম্বর অঞ্চলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবেদ আলী পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত সাতটি মামলায় ৮ হাজার ৫৫০ টাকা জরিমানা করা হয়।

jagonews24.com

এছাড়া ডিএনসিসির সমগ্র এলাকার জন্য নিয়োজিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত মোট চারটি মামলায় ১ লাখ ৪ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এভাবে মোট ৫৩টি মামলায় মোট ২ লাখ হাজার ৭৫০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এমএমএ/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]