প্রবাসীদের সাহায্য করতে অ্যাপ-ওয়েব পোর্টাল চালু

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৫৯ পিএম, ০৮ মে ২০২১

বিদেশে চাকরিতে আগ্রহী বাংলাদেশি নাগরিকদের পরিপূর্ণ সেবা দিতে উদ্বোধন করা হয়েছে ‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপ ও ওয়েব পোর্টাল। এর মাধ্যমে বিএমইটি রেজিস্ট্রেশনে সহযোগিতা করে সরকারি ডাটাবেসকে পরিপূর্ণ রূপরেখায় নিয়ে আসবে এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থান সম্পর্কিত তথ্য সহায়তার মাধ্যমে অভিবাসীদের উপকৃত করবে।

শনিবার (৮ মে) সকাল ১১টায় ভার্চুয়ালি এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই উদ্যোগটির উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কাইকাউস। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় এই অ্যাপ তৈরি করা হয়েছে।

এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে ইমরান আহমেদ বলেন, পৃথিবীর আর কোনো দেশে অভিবাসীদের জন্য কোনো ধরনের অ্যাপ বা ওয়েব পোর্টাল চালু করেনি। আমাদের অভিবাসী কর্মীদের আয় করা রেমিট্যান্স সর্বদা আমাদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে, আমাদের জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ব্যাপক অবদান রাখছে। সুতরাং উন্মোচিত এই অ্যাপ্লিকেশন- ‘আমি প্রবাসী’ অভিবাসন প্রক্রিয়ায় বিরাজমান জটিলতা ও চ্যালেঞ্জগুলো হ্রাস করে কাঠামোগত ও সংগঠিত একটি সিস্টেমের ভিত্তি তৈরি করে দেবে, যা আমাদের যুব সমাজকে বৈদেশিক কর্মসংস্থানে অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি সুরক্ষিত ভবিষ্যৎ গড়ে তুলতে সুযোগ করে দেবে।

‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপ দ্বারা জনশক্তি ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানের সঙ্গে সংযুক্ত ও নিয়োজিত ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠান যাতে শতভাগ সুফল আদায় করে নিতে পারে। যাতে আমাদের অভিবাসীরা উপকৃত হয়- যা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর সময়কালে একটি বড় প্রাপ্তি হবে বলে মনে করেন বিশিষ্ট নীতিনির্ধারক ইমরান আহমদ ও ডা. আহমদ কাইকাউস।

আমি প্রবাসী-এর মতো যুগোপযোগী অ্যাপ আধুনিক করবে আমাদের চলমান সিস্টেমকে যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কার্যকর প্রণালী হিসেবে কাজ করবে বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এই অ্যাপ ব্যবহার করা যেমন সহজ, তেমনি এটি দূর করতে পারবে বহু প্রতিকূলতাকে; যা কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে বিদেশে গমনেচ্ছুরা প্রায়শই মুখোমুখি হয়। অভিবাসন খরচ কমানো, পুরো অভিবাসন প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা বৃদ্ধি, দলিলপত্র যাচাই এবং সত্যায়িত ও মোবাইল দ্বারা সম্পন্ন করা আর্থিক লেনদেন ও চাকরির নোটিশ- ‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপ পুরো প্রক্রিয়াকে একটি পয়েন্টে নিয়ে আসবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ডা. আহমেদ মুনিরুস সালেহীন। তিনি শুভেচ্ছা বক্তব্যে আমি প্রবাসী অ্যাপের সফলতা কামনা করেন।

অনুষ্ঠান চলাকালে আমি প্রবাসী অ্যাপের তথ্য ও ব্যবহার বিস্তারিতভাবে উপস্থাপন করেন অ্যাপ্লিকেশন প্রস্তুত ও প্রকল্পটির নেতৃত্বদানকারী বাংলা ট্র্যাক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারেক একরামুল হক এবং বাংলা ট্র্যাক গ্রুপের পরিচালক নামির আহমেদ নুরী।

জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ (বিএমইটি) ব্যুরোর যুগ্মসচিব ও অতিরিক্ত মহাপরিচালক মিসেস নাফরিজা শায়মা সঞ্চালনায় বিএমইটির অতিরিক্ত সচিব ও মহাপরিচালক মো. শামসুল আলম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

আমি প্রবাসী অ্যাপটি বিদেশে গমনেচ্ছু কর্মীদের আবেদন পত্র ও ফরম পূরণ সঠিক প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন করা, প্রকৃত চাকরি অনুসন্ধান, সঠিক এজেন্সিগুলোর সঙ্গে সংযোগ স্থাপন এবং বিমানবন্দরে সকল সহায়তামূলক কার্যাবলী, গন্তব্যতে নিশ্চিন্তে পৌঁছানো- বিদেশে কাজ করার প্রক্রিয়াকে সহজ, স্পষ্ট করার জন্য একটি প্রকৃত ও পরিপূর্ণ অ্যাপ হিসেবে তৈরি করা হয়েছে। অ্যাপটি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

এআরএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]