২৫ জুলাই থেকে কর্মবিরতির ঘোষণা পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসােসিয়েশনের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩৮ পিএম, ১২ জুন ২০২১

সংশােধিত বাজেটে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা খাতে বরাদ্দ বাড়ানো, ঈদুল আযহার আগে শতভাগ বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশােধসহ বিভিন্ন দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন। এসব দাবি না মানলে আগামী ২৫ জুলাই থেকে সংশ্লিষ্ট পৌরসভাগুলােতে অনির্দিষ্ট কালের জন্য কর্মবিরতি পালনের হুঁশিয়ারি দিয়েছে সংগঠনটি। পাশাপাশি, সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়গুলোতেও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে বলেও জানান তারা।

শনিবার (১২ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনটির সভাপতি আব্দুল আলীম মােল্যা। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংবিধানের ৫১ (১) অনুচ্ছেদে পৌরসভাগুলোকে প্রশাসনিক ইউনিট হিসেবে ঘােষণা করেন। কিন্তু সরকারের অন্যান্য প্রশাসনিক ইউনিটের কর্মচারীদের সঙ্গে সীমাহীন বৈষম্যের কারণে পৌরসভার কর্মচারীদের দুঃখ-দুর্দশা চরম আকার ধারণ করেছে। পৌর কর্মচারীরা বেতন না পেয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

তিনি আরও বলেন, দেশের ৩২৯ টি পৌরসভার মধ্যে প্রায় ৭৫ শতাংশ পৌরসভায় ২ থেকে ৭০ মাস পর্যন্ত বেতন ভাতা বকেয়া রয়েছে। এ পর্যন্ত ১০২৬ জন অবসর প্রাপ্ত কর্মচারীর প্রায় ৩৮৫ কোটি টাকা অবসরকালীন ভাতা বকেয়া রয়েছে। এছাড়া ৩২৯টি পৌরসভায় ১১ হাজার ৬৭৫ জন পৌর কর্মচারীর সর্বমােট প্রায় ৮৭৫ কোটি টাকা বেতন-ভাতা বকেয়া রয়েছে। তাই পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন -ভাতা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে ২০২১-২০২২ অর্থ বছরের সংশােধীত বাজেটে বেতন ভাতা খাতে ইউনিয়ন পরিষদের আদলে বরাদ্দ বৃদ্ধিসহ অবিলম্বে ৮ দফা দাবী বাস্তবায়ন করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনের শেষ পর্যায়ে আট দফা দাবি উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসােসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল আলীম মােল্যা।

সংবাদ সম্মেলনে এসােসিশেনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, সহ-সভাপতি আখতার হােসেন, কাজী মােস্তফা কামাল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সুমন দত্ত, শফিকুল ইসলাম আগুন, রােকসানা পারভীন,সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম পাটোয়ারী জিসান বাবু, অর্থ সম্পাদক মজিবুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এমএমএ/এসএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]