প্রকৃত কৃষকদের মাঝে বীজ সরবরাহ করতে পারলে সুফল আসবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৯ পিএম, ১৪ জুন ২০২১

কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম বলেছেন, অধিক ফসল উৎপাদনের জন্য প্রকৃত কৃষকদের মাঝে উন্নতমানের বীজ সরবরাহ করতে হবে। তাহলে প্রকৃত সুফল আসবে। এছাড়া ইউনিয়নভিত্তিক বীজ সংরক্ষণ ব্যবস্থা করে উৎপাদন ও বিতরণ বাড়াতে হবে। পাশাপাশি কৃষকদের প্রশিক্ষণেরও ব্যবস্থা করতে হবে।

সোমবার (১৪ জুন) রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি) অডিটোরিয়ামে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের আওতায় বাস্তবায়নাধীন কৃষক পর্যায়ে উন্নতমানের ডাল, তেল ও মসলা বীজ উৎপাদন, সংরক্ষণ ও বিতরণ প্রকল্পের জাতীয় কর্মশালায় ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সিনিয়র সচিব বলেন, ফসল ব্যবস্থাপনা সঠিকভাবে করার জন্য আমাদেরকে সমলয় চাষাবাদে যেতে হবে। কৃষিকে বহুমুখীকরণ করে বাণিজ্যিক কৃষিতে রূপান্তর করতে হবে। অধিক উৎপাদনের মাধ্যমে আমদানি হ্রাস করতে পারলে বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হবে।

তিনি বলেন, নিরাপদ ফসল উৎপাদন ও রফতানি বৃদ্ধি করতে হবে। স্বল্প জীবনকাল সম্পন্ন ফসল উৎপাদন করে শস্যের নিবিড়তা বৃদ্ধির মাধ্যমে পুষ্টিসমৃদ্ধ ফসল উৎপাদনে গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. আসাদুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের সরেজমিন উইংয়ের পরিচালক একেএম মনিরুল ইসলাম ও বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সির পরিচালক আবদুর রাজ্জাক।

স্বাগত বক্তব্য ও প্রকল্পের কার্যক্রম উপস্থাপন করেন প্রকল্প পরিচালক মো. খায়রুল আলম। কর্মশালায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক, উপ-পরিচালক, উপজেলা কৃষি অফিসাররাসহ প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা সরাসরি ও জুমে অংশ নেন।

এনএইচ/এমআরআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]