‘করোনাকালীন কাজের স্বীকৃতি আইএলও পর্ষদে সর্বোচ্চ ভোট’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০২ পিএম, ১৫ জুন ২০২১
ফাইল ছবি

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, করোনাকালীন কাজের স্বীকৃতি হিসেবে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) পরিচালনা পর্ষদের উপসদস্য পদে সর্বোচ্চ ভোটে নির্বাচিত হয়েছে। এটি প্রধানমন্ত্রীর কৃতিত্ব।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) এক বিবৃতিতে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী এবং সময়োপযোগী সিদ্ধান্তে চলমান বৈশ্বিক মহামারি মোকাবিলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে কলকারখানায় উৎপাদন ব্যবস্থা ঠিক রেখে শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ও জীবনমান সুরক্ষার জন্য এই আন্তর্জাতিক সংস্থায় বাংলাদেশের এই প্রাপ্তি।

গতকাল জেনেভায় আইএলওর শ্রম সম্মেলনের ১০৯তম অধিবেশনে বাংলাদেশের পক্ষে ভোট পড়েছে ২০১টি। এশীয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। আগামী ২০২৪ সাল পর্যন্ত আইএলওর পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হিসেবে মর্যাদা অক্ষুণ্ন থাকবে।

বিবৃতিতে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, গতবছর করোনা মহামারির শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের বেতনভাতা নিশ্চিতে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেন। শ্রমিকদের বেতনভাতা নিশ্চিত করেন। দেশের সকল মানুষকে সুরক্ষায় ৩১ দফা নির্দেশনা দেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মেনে আমরা সারাদেশে মাঠপর্যায়ে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতর এবং শ্রম অধিদফতরের কর্মকর্তা, মালিক এবং শ্রমিক প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে ২৩টি বিশেষ ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কমিটি গঠন করি। কমিটির সদস্যরা আইএলওর সহযোগিতায় তৈরি করা পেশাগত স্বাস্থ্যসুরক্ষা নির্দেশিকা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক পোস্টার কারখানা পর্যায়ে বিলি করছেন। এর সঙ্গে শ্রমিকদের মধ্যে স্বাস্থ্যসচেতনতা বৃদ্ধিতে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে আলোচনা করে শ্রমঘন এলাকায় মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা মাইকিংয়ের ব্যবস্থা করেছেন। শ্রমিকদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে এ অধিদফতরের চিকিৎসকদের মাধ্যমে টেলিমেডিসিন সেবা প্রদান কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনার এই দুর্যোগকালীন শ্রম মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল হতে গত এক বছরে প্রায় প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে কর্মরত তিন হাজার ২৬৯ জন শ্রমিককে চিকিৎসা সহায়তা বাবদ ৯ কোটি ৯৬ লাখ ৯০ হাজার টাকা, কর্মরত অবস্থায় মৃত ৯২ জন শ্রমিকের পরিবারকে ৩৯ লাখ ২০ হাজার টাকা, শ্রমিকদের সন্তানের শিক্ষাসহায়তা বাবদ ১৬৬ জনকে ৫২ লাখ ৮৫ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

আইএলওর পরিচালনা পর্ষদে এটি বাংলাদেশের টানা তৃতীয় জয়। এর আগে ২০১৪-২০১৭ এবং ২০১৭-২০২১ মেয়াদেও আইএলওর পরিচালনা পর্ষদের উপসদস্য হিসেবে সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে বাংলাদেশ। নির্বাচিত হওয়ার ফলে স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উত্তরণের পর শুল্কমুক্ত রফতানি সুবিধা বহাল রাখার ক্ষেত্রে সদস্যদের সমর্থন আদায়ে সুবিধা পাবে বাংলাদেশ।

শ্রম প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় অংশ নেন মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আব্দুস সালাম এবং জেনেভায় জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মোস্তাফিজুর রহমান।

আইএইচআর/বিএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]