বিদেশগামী কর্মীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভ্যাকসিন চায় বায়রা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫৯ পিএম, ১৬ জুন ২০২১

বিদেশগামী কর্মীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনা টিকা দেয়ার পাশাপাশি টিকিটের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে বায়রার সম্মিলিত সমন্বয় পরিষদ।

বুধবার ঢাকা রিপোর্টারস ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সম্মিলিত সমন্বয় পরিষদ থেকে নির্বাচিত বায়রার সাবেক সভাপতি আবুল বাশার বলেন, ‘দিন দিন প্রতিটি দেশে যেতে টিকার সনদ বাধ্যতামূলক হচ্ছে। বিদেশগামী কর্মীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা না দিলে একসময় কর্মী যাওয়া বন্ধ হয়ে যাবে।’

তিনি বলেন, ‘সরকার বিদেশগামী কর্মীদের ২৫ হাজার টাকা করে প্রণোদনা ঘোষণা করেছে। কিন্তু আমাদের দাবি প্রণোদনা না দিয়ে দ্রুত টিকার ব্যবস্থা করা হোক। সরকার চাইলে সৌদি আরব অথবা টিকা দাতাসংস্থাগুলো, যেখানে বাংলাদেশি কর্মী যায়, তাদের থেকে টিকার ব্যবস্থা করতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘টিকা না পেলে কর্মীদের বাধ্যতামূলক ৭ দিনের ব্যয়বহুল হােটেল কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে। যার খরচ প্রায় ৭০-৮০ হাজার টাকা। এখন ৫০ হাজার কর্মী বিদেশে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত আছে। ফলে তাদের কোয়ারেন্টাইন বাবদ ৩৭৫ কোটি টাকা বিদেশে চলে যাচ্ছে।’

লিখিত বক্তব্যে সম্মিলিত সমন্বয় পরিষদের শাহাদাৎ হোসেন বলেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনীতির অধিকাংশ জুড়ে আছে প্রবাসীদের অবদান। রিজার্ভের ৪৫ বিলিয়ন ডলারের মধ্যে প্রায় ২৪ বিলিয়ন ডলার প্রবাসী কর্মীদের। কিন্তু কোভিডের কারণে বর্তমান শ্রমবাজারে একমাত্র সৌদি আরব ছাড়া সব দেশে শ্রমিক প্রেরণ বন্ধ রয়েছে। এমনকি এই বিশ্ব মহামারিকে সামনে রেখে সৌদি সরকার তাদের দেশে সার্বিক স্বাস্থ্য সুরক্ষার লক্ষ্যে কিছু নিয়ম চালু করেছে।’

তিনি বলেন, ‘এছাড়া টিকিটের যে উচ্চমূল্য বিভিন্ন এয়ারলাইন্স নির্ধারণ করেছে, তা বহন করতে আমাদের অনেক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। টিকিটের মূল্যের অতিরিক্ত ব্যয় পরােক্ষভাবে প্রবাসী কর্মীদের উপরই বর্তায়। টিকিটের এই বিদ্যমান উচ্চমূল্য শুধুমাত্র বাংলাদেশ থেকে কর্মী প্রেরণকারী গন্তব্যের জন্য প্রযােজ্য।’

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘এমতাবস্থায় আমরা আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। যাতে সরকার বিদেশগামী কর্মীদের টিকিটের মূল্য সহনশীল পর্যায়ে নিয়ে আসে এবং অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দেয়ার প্রয়ােজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে।’

এনএইচ/এমএইচআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]