৩য় শ্রেণির কর্মচারীরা চান প্রশাসনিক কর্মকর্তার পদ, ১১ গ্রেডে বেতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:০০ এএম, ১৮ জুন ২০২১

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারীদের ন্যূনতম ১১তম বেতন গ্রেড এবং পদের নাম পরিবর্তন করে ‘প্রশাসনিক কর্মকর্তা’ করার দাবি জানানো হয়েছে।

শুক্রবার (১৮ জুন) সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তৃতীয় শ্রেণি কর্মচারী পরিষদ।

সংবাদ সম্মেলনে তারা ৫ দফা দাবি তুলে ধরেন। সেগুলো হলো-

তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারীদের ন্যূনতম ১১তম বেতন গ্রেড দিতেতে হবে এবং প্রণিত চাকরি বিধি অনুসারে তাদের পদের সংখ্যা বাড়াতে হবে। পদের নাম পরিবর্তন করে প্রশাসনিক কর্মকর্তা করতে হবে এবং পেশাগত উন্নয়নে কম্পিউটারসহ অন্যান্য উচ্চতর প্রশিক্ষণ দিতে হবে। পূর্বঘোষিত প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ‘চাকরিবিধি-২০১২’ দ্রুত বাস্তবায়ন করতে হবে এবং ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডিতে কর্মচারীদের সদস্য রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে বিভাগীয় কোটায় শিক্ষকসহ অন্যান্য পদে পদোন্নতি দিতে হবে। সব এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করতে হবে।

তৃতীয় শ্রেণি কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার মন্টু বলেছেন, ‘করোনাকালীন সময়ে সকল স্তরের মানুষ বিভিন্নভাবে সুবিধা পেয়েছেন। কিন্তু আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সার্বক্ষণিক কাজ করে সুবিধাবঞ্চিত। সেসব বঞ্চনা থেকে মুক্তি পেতে আমরা ৫ দফা দাবি জানিয়েছি।’

এই ৫ দফা দাবি দেশের প্রত্যেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা প্রশাসক, শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান ও জেলা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে বলেও জানান রফিকুল ইসলাম।

পিডি/এসএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]