‘একই স্থানে সব বিদ্যুৎ সেবা দেয়া হলে গ্রাহক হয়রানি কমবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৫ পিএম, ১৯ জুন ২০২১

বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলোতে একই স্থানে সব সেবাদান সুবিধা থাকা বাঞ্ছনীয়, এতে গ্রাহক হয়রানি কমবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

শনিবার (১৯ জুন) ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের (ডিপিডিসি) উদ্যোগে আয়োজিত ঢাকার পরিবাগের হাতিরপুল পাওয়ার হাউজ ক্যাম্পাসে ‘ধানমন্ডি টুইন টাওয়ার’ ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলোতে একই স্থানে সব সেবাদান সুবিধা থাকা বাঞ্ছনীয়। সংযোগ, সংযোগোত্তর সেবা, তথ্য সেবা বা বিল প্রদান একই স্থানে করা গেলে গ্রাহক হয়রানি কমবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, টুইন টাওয়ারে এক দিকে যেমন আধুনিক প্রযুক্তির সন্নিবেশ থাকবে, ঠিক তেমনি অন্যদিকে থাকবে বাণিজ্যিক স্পেস। ফলে ডিপিডিসির আয় বাড়বে। এই ভবনে ডিজিটাল মিউজিয়াম থাকবে, যা নতুন প্রজন্মকে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ ও বিদ্যুতায়নের রূপান্তর বিষয়ে সচেতন করবে। তিনি এ সময় দ্রুত প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

jagonews24

বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, চীনের সহযোগিতায় ডিপিডিসি এলাকায় গ্রাহকদের বিদ্যুৎ সরবরাহ করার জন্য সুবিধা তৈরি ও বিদ্যুৎ বিতরণ সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ‘এক্সপানশন অ্যান্ড স্ট্রেনদেনিং অব পাওয়ার সিস্টেম নেটওয়ার্ক আন্ডার ডিপিডিসি এরিয়া’ প্রকল্পটি নেয়া হয়েছে। ইপিসি কন্ট্রাক্টর হলো- চীনের টিবিইএ কোম্পানি লিমিটেড। এ প্রকল্পে ১৪টি ১৩২/৩৩ কেভি সাবস্টেশন, ২৬টি ৩৩/১১ কেভি সাবস্টেশন, স্কেডা অটোমেশন সিস্টেম, আধুনিক ম্যাকানাইজড ওয়ারহাউজ, ভূগর্ভস্থ তার ১৩২ কেভি ৬৫৩ কিলোমিটার ও ৩৩ কেভি ৭০০ কিলোমিটার, বিতরণ লাইন ক) ১১ কেভি ৫৬৭ কিলোমিটার ভূগর্ভস্থ, খ) ১১ কেভি ২ হাজার ৫১৫ কিলোমিটার ওভারহেড গ) ০.৪ কেভি দুই হাজার কিলোমিটার ওভারহেড, ধানমন্ডিতে ১০৫ কিলোমিটার ওভারহেড তার ভূগর্ভস্থ করা এবং আধুনিক সাবস্টেশন কাম অফিস/বাণিজ্যিক/আবাসিক হাইরাইজ ভবন নির্মাণ রয়েছে।

ডিপিডিসির ধানমন্ডি টুইন টাওয়ার ৭.৩২ একর জায়গার ওপর নির্মিত হবে, যার ৫০ ভাগ ভূমিই থাকবে উন্মুক্ত। প্রযুক্তিগত বিষয় ও অফিশিয়াল স্পেস ছাড়াও তিন তলাবিশিষ্ট বেজমেন্টের ওপর ভবনটির আরও ১৫ তলা থাকবে। বাণিজ্যিক স্পেস, ডিজিটাল মিউজিয়াম, বাংকোয়েট হল, সিনেপ্লেক্স, ক্যাফে ও ফুট কোর্ট থাকবে।

ডিপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকাশ দেওয়ানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং, বিদ্যুৎ সচিব মো. হাবিবুর রহমান, টিবিইএ কোম্পানির ভাইস প্রেসিডেন্ট জেকি চেন ডং বক্তব্য রাখেন।

আরএমএম/এআরএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]