রামপুরায় গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:০২ এএম, ২০ জুন ২০২১
ফাইল ছবি

রাজধানীর রামপুরায় গলায় ফাঁস দিয়ে হামিদা বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার (১৯ জুন) রাত সোয়া নয়টার দিকে রামপুরার উলন বাগিচারটেক এলাকার একটি বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

হামিদা বেগমের বাড়ি নওগাঁর জেলায়। তার স্বামীর নাম মেহেদী হাসান। রামপুরা উলন বাগিচারটেক এলাকায় ১৪/২/১ বাসার অষ্টম তলায় ভাড়া বাসায় থাকতেন তারা।

মেহেদী হাসান জানান, ‘আমি ডিপিডিসির সাব-স্টেশন ইঞ্জিনিয়ার। বাসায় আমার স্ত্রী ও পাঁচ বছরের মেয়ে ছিল। বাসার আরকে ভাড়াটিয়ার ছেলে সাদ আমাকে ফোন দিয়ে বলেন, আপনার স্ত্রী ফাঁসি নিয়েছে। আমি দ্রুত বাসায় এসে দেখি, রুমে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে আছে হামিদা। ওড়না কেটে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

তিনি আরও জানান, ‘আমার স্ত্রীর দুই মাস আগে পিত্তথলিতে একটা অপারেশন হয়। অপারেশনের পর থেকে সে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। বিভিন্ন সময় দুশ্চিন্তায় থাকতো। সে এ নিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে আমার ধারণা।’

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, হামিদা বেগমের স্বামী মেহেদী হাসানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ক্যাম্পে রাখা হয়েছে। বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে। ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে মরদেহ। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।

এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]