জবাবদিহিতামূলক জনপ্রশাসনের ভূমিকা অপরিহার্য : রাষ্ট্রপতি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৬ এএম, ২৩ জুন ২০২১

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, সরকারি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়াসহ সরকার গৃহীত উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের সুষ্ঠু বাস্তবায়নে দক্ষ, গতিশীল, স্বচ্ছ ও জবাবদিহিমূলক জনপ্রশাসনের ভূমিকা অপরিহার্য।

বুধবার (২৩ জুন) আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে এ কথা বলেন তিনি। রাষ্ট্রপতি বলেন, আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত সকল কর্মচারীকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, বর্তমানে সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশও কোভিড মহামারির সঙ্গে যুদ্ধ করছে। মহামারি জীবন সংহারের পাশাপাশি মানুষের জীবন ও জীবিকাকে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। মহামারি পরিস্থিতির মাঝেও দেশের গণকর্মচারীরা বিভিন্ন খাতে তাদের সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন, যা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার।

তিনি বলেন, প্রজাতন্ত্রের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী গণকর্মচারীদের আমি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি। সম্মুখসারির কর্মচারীসহ সকল সরকারি কর্মচারী অনন্য সাহসীকতার পরিচয় দিয়ে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিচারব্যবস্থাসহ সকল খাতে উদ্ভাবনীমূলক ও প্রযুক্তি-নির্ভর সেবা প্রদানের মাধ্যমে জীবন-জীবিকার ওপর কোভিডের প্রভাব নিম্নতম পর্যায়ে রাখতে ইতিবাচক অবদান রেখেছেন।

আবদুল হামিদ বলেন, দেশের কৃষি এবং ক্ষুদ্র, মাঝারি ও বৃহৎ শিল্পসহ সার্বিক অর্থনীতির চাকা সচল রাখার জন্য সরকারের গৃহীত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন, সম্পদ সংগ্রহ ও ব্যবস্থাপনাতে সরকারি কর্মচারীরা দক্ষতার স্বাক্ষর রেখেছেন। আমি কোভিড মহামারির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সরকারি কর্মচারীদের পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে জনগণের চাহিদা ও সেবার ধরণ অনুযায়ী যুগোপযোগী ও প্রযুক্তিনির্ভর সেবা প্রদান নিশ্চিত করার আহ্বান জানাচ্ছি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, কোভিড-১৯ আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ গ্রহণের পাশাপাশি ভবিষ্যতে এ ধরনের পরিস্থিতিতে জনসেবা প্রদানে অধিকতর সহনশীল, কার্যকরী ও সংবেনদশীল হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করেছে। এ ধরনের পরিস্থিতি থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে যথাযথ নীতি-কৌশল প্রণয়ন, প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বৃদ্ধি, নতুন প্রতিষ্ঠান সৃষ্টি, অবকাঠামো উন্নয়ন, কার্যকর সম্পদ ব্যবস্থাপনা ও কর্মচারীদের সক্ষমতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সরকার ভবিষ্যতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

কোভিড-১৯-এর বিরূপ প্রভাব কাটিয়ে রূপকল্প-২০৪১ এবং এসডিজি-২০৩০ এর লক্ষ্যমাত্রাসমূহ অর্জনে প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা সততা, দক্ষতা ও পেশাদারত্বের সঙ্গে মানবিক মূল্যবোধ সমুন্নত রেখে তাদের দায়িত্ব পালন করবেন- এ প্রত্যাশা করি। আমি আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সফলতা কামনা করছি।

এইচএস/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]