বাসায় কাজের কথা বলে তরুণীকে যৌনতায় বাধ্য করায় দম্পতি গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ২৫ জুলাই ২০২১

চাঁদপুর সদর থানা এলাকায় একটি বাসায় আটকে রেখে দীর্ঘদিন ধরে এক তরুণীকে জোরপূর্বক যৌনতায় বাধ্য করে আসছিল এক দম্পতি। সর্বশেষ এই অত্যাচার থেকে বাঁচতে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর-৯৯৯ এ ফোন দিয়ে সাহায্য চান ভুক্তভোগী। পরে ৯৯৯-এর ফোনে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশ ওই ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করে।

রোববার (২৫ জুলাই) জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এর পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শনিবার চাঁদপুর সদর থানার ওয়ারলেস স্কুলের পাশের একটি ভবন থেকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে এক তরুণী (১৮) ৯৯৯ নম্বরে ফোন করেন। ফোনে তিনি জানান, তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানায়। সাড়ে তিন মাস আগে মাহি ও মাহির স্বামী রিপন তাদের বাসায় কাজের কথা বলে তাকে নিয়ে আসে। কিন্তু তাকে দিয়ে ঘরের কাজের পরিবর্তে জোর করে যৌনতায় বাধ্য করানো হচ্ছিল। এ ধরনের কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হতো। এখন সে এক খদ্দেরের ফোন থেকে টয়লেটে লুকিয়ে ৯৯৯-এ ফোন করে। কলার ৯৯৯-এর কাছে তাকে উদ্ধারের ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানায়।

আনোয়ার সাত্তার বলেন, ৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি চাঁদপুর সদর থানায় জানিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ করে। খবর পেয়ে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে যায়।

পরে চাঁদপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রাশেদুজ্জামান ৯৯৯-কে জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করেন এবং আটকে রেখে জোরপূর্বক যৌনতায় বাধ্য করার অভিযোগে মাহি আক্তার বর্ষা ওরফে মাকসুদা বেগম মাহি (২৬) ও তার স্বামী রিপন গনিকে আটক করা হয়।

এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

টিটি/এআরএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]