পুলিশের সহায়তায় আইফোন ও ভ্যানিটি ব্যাগ ফিরে পেলেন যাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৪ পিএম, ২৮ জুলাই ২০২১

সিএনজিতে আইফোন ও ভ্যানিটি ব্যাগ ফেলে গিয়েছিলেন এক যাত্রী। ভ্যানিটি ব্যাগে আবার নগদ চার হাজার টাকাও ছিল। এগুলো হাতে পড়ে পরবর্তী আরেক যাত্রীর। এ সময় আইফোন ও ভ্যানিটি ব্যাগ নিয়ে সিএনজিচালক এবং ওই যাত্রীর মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়।

এ সময় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ডেমরা জোনে কর্তব্যরত সার্জেন্ট সবুজ ঘোষ এগিয়ে আসেন। পরে আইফোন ও ভ্যানিটি ব্যাগটি নিয়ে তিনি প্রকৃত মালিকের কাছে হস্তান্তর করেন।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বিকেলে রাজধানীর ডেমরার সুলতানা কামাল ব্রিজ সংলগ্ন চেকপোস্টে এ ঘটনা ঘটে।

ট্রাফিকের ডেমরা জোন সূত্রে জানা যায়, লাকি আক্তার নামে এক যাত্রী সিএনজিচালিত অটোরিকশায় ডেমরার কোনাপাড়া থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া যাওয়ার পথে ওই ভ্যানিটি ব্যাগ ও আইফোন ভুলবশত সিএনজিতে রেখে যান। ভ্যানিটি ব্যাগে নগদ চার হাজার ৫০০ টাকা ছিল।

এ সময় সিএনজিচালক ঢাকায় ফেরার সময় পথে আরেক যাত্রী ওঠান। ফেরার পথে সুলতানা কামাল ব্রিজের কাছে এলে ফেলে যাওয়া ব্যাগ ও আইফোন সিএনজির ভেতরে থাকা যাত্রীর হাতে দেখতে পান চালক। এরপর এসব প্রকৃত মালিককে ফেরত দেয়া নিয়ে সিএনজিচালক ও যাত্রীর মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। এ সময় ঘটনাস্থলে গিয়ে সেগুলো উদ্ধার করেন কর্তব্যরত সার্জেন্ট সবুজ।

এদিকে ওই আইফোনে কল দিয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন লাকী আক্তার। তখন সার্জেন্ট সবুজ ফোনটি ধরলে তিনি ভুলবশত ভ্যানিটি ব্যাগ ও আইফোন ফেলে যাওয়ার কথা বলেন।

এরপর হারিয়ে যাওয়া জিনিসগুলো তার পক্ষে গ্রহণের জন্য উপযুক্ত প্রতিনিধি হিসেবে তার ভাগনি ও ছেলেকে সার্জেন্ট সবুজের কাছে পাঠান। সার্জেন্ট সবুজ যাচাই-বাছাই করে আইফোন ও টাকাসহ ভ্যানিটি ব্যাগ ভিকটিমের ছেলে আরাফাত সরকারের কাছে হস্তান্তর করেন।

টিটি/জেডএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]