কর্মীদের অফিসে আসতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশ, ব্যবস্থা নিল পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০১ পিএম, ০৩ আগস্ট ২০২১

রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত এক ইমেইল বার্তায় ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষক ও স্টাফকে সশরীরে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপস্থিত থেকে নিয়মিতভাবে তাদের দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনা করতে নির্দেশ দেয়া হয়।

ওই ইমেইল বার্তায় বলা হয়, যারা বাড়িতে বসে অনলাইনে অফিস করবেন তাদের বেতন কাটা হবে। তবে, যারা সশরীরে কর্মস্থলে হাজির হয়ে অফিস করবেন তাদেরকে পুরো বেতন দেয়া হবে।

এ ধরনের একটি ইমেইল বার্তা বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইংয়ের হাতে আসে।

পুলিশ সদর দফতর বলছে, সরকারি নির্দেশ অমান্য করে কর্মচারী ও স্টাফদেরকে এ ধরনের বার্তা দিয়ে তাদের ওপর চাপ প্রয়োগ করে কর্মস্থলে আসতে বাধ্য করা আইনবিরোধী।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) রাতে পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স) মো. সোহেল রানা এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ৩ আগস্ট দুপুরে এই বার্তাটি পাওয়ার পর মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং তা কলাবাগান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিতোষ চন্দ্রকে প্রেরণ করে ব্যবস্থ নিতে বলে। কলাবাগান থানার ওসি একটি টিমসহ ওই এলাকায় অবস্থিত বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ব্রাঞ্চ পরিদর্শন করে জানান, বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রধান ক্যাম্পাস ধানমন্ডি থানার অধীনে এবং সেখান থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ক্যাম্পাসকে নির্দেশটি দেয়া হয়েছে।

এরপর, ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকরাম আলী মিয়াকে বিষয়টি জানিয়ে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেয় মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং।

ধানমন্ডি থানার ওসি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেন এবং তাদের অফিস কর্তৃক প্রেরিত ইমেইল বার্তার বিষয়ে জানতে চান। পুলিশের উপস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের ভুল বুঝতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করে নতুন একটি ইমেইল বার্তায় পূর্বের আদেশ তুলে নিয়ে সব স্টাফ, শিক্ষক ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের কার্যক্রম চলমান রাখতে অনুরোধ করেন।

টিটি/এমআরআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]