‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে’ সিএনজি চালানোর সুযোগ চায় চালক সংগ্রাম পরিষদ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০৫ পিএম, ০৪ আগস্ট ২০২১

কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে সিএনজি অটোরিকশা চালুর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সিএনজি অটোরিকশাচালক সংগ্রাম পরিষদ।

বুধবার (৪ আগস্ট) পরিষদের আহ্বায়ক শেখ হানিফ ও যুগ্ম আহ্বায়ক আমিনুল ইসলাম, এ আর জাহাঙ্গীর ও মো. গোলাপ হোসেন এক যুক্ত বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

তারা বলেন, দেশে সাম্প্রতিক সময়ে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টসহ বিভিন্ন ধরনের করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুহার বৃদ্ধি পাওয়ায় সরকার সারাদেশে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের নামে কার্যত লকডাউন কার্যকর রেখেছে। ঈদের এক সপ্তাহ বাদ দিলে গত এক মাসের বেশি সময় সরকার সিএনজি অটোরিকশা সড়কে চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। এতে শুধু ঢাকা শহরেই প্রায় ৫০ হাজার চালক বেকার হয়ে পড়েছেন। চালকরা দিন আনে দিন খায়। তাও আবার অর্ধাহারে-অনাহারে থাকতে হয়। আর্থিক অনটনের কারণে অসুস্থ হলে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারেন না।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমানে সিএনজি অটোরিকশাচালকদের বড় দুর্দিন চলছে। এক্ষেত্রে সরকারেরও কোনো কার্যকর আর্থিক প্রণোদনাও নেই। সিএনজি অটোরিকশা মূলত ব্যক্তিগত ব্যবহার্য যানবাহন, তাই সিএনজি ব্যবহারে করোনায় সংক্রমণের সম্ভাবনা খুবই কম। এখন লকডাউনে যেহেতু গার্মেন্টসহ শিল্প-কলকারখানা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক-বীমা, হাসপাতাল ও জরুরি পণ্য সেবা প্রতিষ্ঠান খোলা সেহেতু এসব প্রতিষ্ঠানে কর্মরত লোকজন গণপরিবহন বন্ধ থাকায় কর্মস্থলে যাতায়াতে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

তারা আরও বলেন, তাছাড়া কোভিড আক্রান্ত রোগীদের পরিবহনস্বল্পতার কারণে তার স্বজনরা দ্রুত হাসপাতালে নিতে পারছেন না। এতে মৃত্যুহার আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত বছরের সাধারণ ছুটির সময় সিএনজি অটোরিকশাচালকরা করোনায় আক্রান্তদের বিনা পারিশ্রমিকে হাসপাতালে ও তাদের ঠিকানায় পৌঁছে দিয়েছেন। সরকার যদি এবারও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানা সাপেক্ষে সিএনজি অটোরিকশা চালানোর অনুমতি দেয় তাহলে জনগণ যেমন সেবা পাবে তেমনি অসহায় সিএনজিচালকরাও পরিবার-পরিজন নিয়ে বেঁচে থাকতে পারবেন।

তাই সারাদেশের সিএনজিচালক ও তাদের পরিবারকে রক্ষার্থে ৫ আগস্টের মধ্যে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে সিএনজি অটোরিকশা চালুর জোর দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় আগামী ৬ আগস্ট বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এফএইচ/বিএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]