৫০ টাকার কেরোসিন ছিটালে ৫ লাখ জরিমানা গুনতে হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:১৭ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০২১
ফাইল ছবি

এডিসের লার্ভা ধ্বংসে ৫০ টাকার কেরোসিন ছিটিয়ে দিলে নির্মাণাধীন ভবন মালিকদের পাঁচ লাখ টাকা জরিমানার মুখে পড়তে হবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

বুধবার (২৫ আগস্ট) সচিবালয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সভাকক্ষে সারাদেশে মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধে ১১তম আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে মেয়র এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আমরা সবাই চেষ্টা করে যাচ্ছি। ডেঙ্গু নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির কাজ করছি। সারা বছর কীভাবে ভেক্টর ম্যানেজমেন্ট করতে পারি, সেই পরিকল্পনা আমরা করেছি। সবাইকে বাসা-বাড়ি পরিস্কার রাখতে হবে। ইন্ট্রিগ্রেটেড ভেক্টর ম্যানেজমেন্টের জন্য আমরা স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব পাঠাবো, আপনি এটা বিবেচনা করবেন।’

আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা মনে করি, ইন্টিগ্রেটেড ভেক্টর ম্যানেজমেন্টের মাধ্যমে শহরকে নিরাপদ করতে পারবো। নির্মাণাধীন বাড়িতে ডেঙ্গুর বেশি লার্ভা পাওয়া যাচ্ছে। লার্ভা পাওয়ায় কোনো কোনো নির্মাণাধীন ভবন মালিককে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করা হচ্ছে। কিন্তু ওখানে তারা যদি ৫০ টাকার কেরোসিন ছিটিয়ে দেয়, তবে এ জরিমানার মুখে আর পড়তে হয় না। যখন পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়, তখন বলেন- আমাদের প্রতি এমন বৈরি মনোভাব কেন।’

মেয়র বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত ৬০ লাখ টাকা জরিমানা (এডিসের লার্ভা ধ্বংসের জন্য) করেছি। আমরা প্রত্যেকে মাঠে আছি, মাঠে থাকব।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্য অধিদপ্তর যে হটস্পট দেয়, সেটিকে আরও আগে কীভাবে দেওয়া যায়। সেটি আগে দিলে আমরা অন্যভাবে পরিকল্পনা করতে পারি।’

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মাদ জাহাঙ্গীর আলম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি (টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা) বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক জুয়েনা আজিজ, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, স্থাস্থ্যসেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত বিভাগের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকারসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/এএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]