জলবায়ু পরিবর্তন ও জনসচেতনতায় ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০৫ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

জলবায়ু পরিবর্তন ও জনসচেতনতার মধ্যে সমন্বয় না থাকলে ডেঙ্গু থেকে বাঁচা দুঃসাধ্য বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সভাপতি সুলতানা কামাল।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। ‘পরিবেশ ও ডেঙ্গু: স্বাস্থ্যগত দৃষ্টিকোণ’ শীর্ষক এই ভার্চুয়াল আলোচনা সভা জুম প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে আয়োজন করে বাপা।

সুলতানা কামাল বলেন, দেশের পরিবেশ ঠিক না থাকার কারণে আজ বিভিন্ন রোগ-বালাই বেড়েই চলেছে। দায়িত্ব ও অধিকারবোধের মধ্যে সমন্বয় জরুরি। এটির অভাব দেখা দিলে সমাজে এ ধরনের রোগ বালাই থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে না।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, পরিবেশবাদীদের কথা সরকারের কাছে নিস্ফল লম্ফঝম্ফ মনে হয়; যা অত্যন্ত দূঃখজনক। আগের পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার ধারাবাহিকতা এখন আর লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।

jagonews24

সুলতানা কামাল বলেন, সিভিল সোসাইটি বলতে এখন আর কিছুই নেই। কারণ কথা বলতে গেলেই বিভিন্ন ধরনের হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। যারা এই ডেঙ্গু প্রতিরোধ কর্ম প্রক্রিয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ত তাদের নিয়ে আমাদেরকে কাজ করতে হবে। ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নিয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধে আলোচনা করা জরুরি। একইসাথে মেয়রদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে; কারণ মূল দায়িত্ব নীতি-নির্ধারকদের, সে দায়িত্ব তারা কখনও এড়িয়ে যেতে পারেন না। সামগ্রিক আঙ্গিকে কাজ না করলে এর সুফল পাওয়া দুষ্কর।

আলোচনা সভায় বাপা পরিবেশ ও স্বাস্থ্য বিষয়ক কমিটির সদস্য সচিব, বিধান চন্দ্র পালের সঞ্চালনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিচর্যা ও রোগ নিয়ন্ত্রণের সাবেক পরিচালক এবং বাপার পরিবেশ ও স্বাস্থ্য বিষয়ক কমিটির আহ্বায়ক আবু মোহাম্মাদ জাকির হোসেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন- বাপার কোষাধ্যক্ষ মহিদুল হক খান, বিআইপি’র সাবেক সভাপতি, অধ্যাপক গোলাম রহমান, পাবলিক হেলথ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. আফতাব উদ্দিন, বাপা নির্বাহী সদস্য এম এস সিদ্দিকী, ফরিদ হাসান আহমেদ প্রমুখ।

এমএমএ/এমআরএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]