কনস্টেবলের সঙ্গে হাত মিলিয়ে প্রশংসায় ভাসছেন আইজিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:১৬ এএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

কনস্টেবলদের সঙ্গে সময় নিয়ে কুশল বিনিময় ও হাত মেলানোর (সামাজিক দূরত্ব মেনে) ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর প্রশংসায় ভাসছেন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে বাংলাদেশ পুলিশের অফিসিয়াল ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে ‘যে ছবি বদলে যাওয়া বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিচ্ছবি’ ক্যাপশনে এ ছবি শেয়ার করা হয়।

ক্যাপশনে আরও লেখা হয়- নেতৃত্বকে পূর্ণতা দেয় বিনয়। অধস্তনকে আপন করে নেওয়ার মধ্যেই ঊর্ধ্বতনের ঔদার্য প্রকাশ পায়। স্রেফ হাত মেলানোর একটি ছবি। একপাশে রয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের অভিভাবক ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ ড. বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার), অন্যপাশে বাংলাদেশ পুলিশের কনস্টেবলরা। কোভিড প্রটোকল মেনে হাত মেলাচ্ছেন তারা! স্বয়ং আইজিপি পদমর্যাদায় বাংলাদেশ পুলিশের কনিষ্ঠতম সদস্যের দিকে হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন! এভাবে যখন হাতে হাত লাগিয়ে বিদায় নেন তখন তা সবার জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে ওঠে। এ দৃশ্য তখন নেতৃত্ব ও মহত্বের অসামান্য ছবি হয়ে ওঠে। এটি শুধু একটি ছবি নয়, এটি বাংলাদেশ পুলিশের পরিবর্তনের এক স্মারক। সময়ের সঙ্গে বদলে যাওয়া বাংলাদেশ পুলিশের এক প্রতিচ্ছবি।

এর আগে, মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) পাবনার ঈশ্বরদীর পাকশীতে পদ্মা নদীর তীরে নির্মাণাধীন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প (আরএনপিপি) পরিদর্শন করতে যান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। সেখানে একটি মতবিনিময় সভায় মন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন আইজিপি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখা যাচ্ছে, আইজিপি তিনজন কনস্টেবলের সালাম নিয়ে তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছেন। দ্বিতীয় ছবিতে তাকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কনস্টেবলদের সঙ্গে হাত (মুষ্টিবদ্ধ) মেলাতে দেখা যায়।

ছবিটি নিজের ফেসবুকে পোস্ট করে পাবনা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মহিবুল ইসলাম খান লিখেছেন, বাহিনীপ্রধান যখন সর্বকনিষ্ঠ সদস্যর সঙ্গে এভাবে বিদায় নেন নিশ্চয়ই তার জন্য তা অনেক আবেগ ও গর্বের মুহূর্ত তৈরি করে।

তিনি আরও লিখেছেন, মান্যবর আইজিপি স্যার গতকাল পাবনার ঈশ্বরদীতে এক সংক্ষিপ্ত সরকারি সফরে আসেন। বিদায় মুহূর্তে ডিআইজি স্যার থেকে শুরু করে উপস্থিত পুলিশ পরিদর্শক সবার সঙ্গে কোভিডকালীন করমর্দন করলেন। সবার পালা শেষ করে স্যার ডিউটিরত কনস্টবলদের কাছে এগিয়ে গেলেন। ওদের চোখেমুখে আমি বিস্মিত ও আনন্দিত হওয়ার মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ করলাম। একজন সাহস করে বলে ফেলল, খুব ভাল লাগল স্যার। দেখলাম ও শিখলাম। স্যালুট টু আইজিপি স্যার। আপনার যোগ্য নেতৃত্বে বহুদূর এগিয়ে যাবো আমরা।

এদিকে, ছবিটি দেখে অনেকেই ফেসবুকে ইতিবাচক মন্তব্য করছেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) মো. মাহবুব কবীর মিলন লিখেছেন, ক্ষমতা, মানবিকতা, ডেডিকেশন এবং কমিটমেন্ট যদি একসঙ্গে সমন্বিত হয়, তবে এর থেকে ভালো কিছু আর হয় না। এখন সবার দায়িত্ব, ওনাকে দিয়ে করিয়ে নেওয়া। ধন্যবাদ আইজিপি স্যারকে।

পুলিশ সদরদপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি-মিডিয়া) মো. কামরুজ্জামান রাসেল লিখেছেন, ছবিটি শুধু একটি ছবি নয়, বরং অনেক অনুপ্রেরণা ও ভালোবাসার একটি গল্প। বাহিনীর প্রধান যখন তার সর্বকনিষ্ঠ সদস্যর সঙ্গে এভাবে বিদায় নেন, এর থেকে অনুপ্রেরণাদায়ক ও ভালোলাগার বিষয় আর কী হতে পারে? আমাদের সকলের জন্য তা অনুসরণীয় এবং অনুকরণীয়। স্যালুট স্যার। আপনার মতো একজন নির্মোহ ও নির্লোভ যোগ্য নেতৃত্বের হাত ধরে বহুদূর এগিয়ে যাবো আমরা।

জাহিদ নামের পুলিশের এক উপ-পরিদর্শক (এসআই) লিখেছেন, আমরা পাবনা জেলা পুলিশ সত্যিই গর্বিত, স্যার। বাংলাদেশ পুলিশের অহংকার আইজিপি স্যারের পাশে পাবনা জেলার মানুষের আস্থার প্রতীক শ্রদ্ধেয় এসপি স্যার।

টিটি/এমকেআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]