হিন্দু উত্তরাধিকার আইন পরিবর্তন চায় না সম্মিলিত পরিষদ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০১ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

বাংলাদেশের সনাতনী সমাজ হিন্দু উত্তরাধিকার আইন পরিবর্তন চায় না দাবি করে আইনটি পরিবর্তন না করার আহ্বান জানিয়েছে হিন্দু আইন পরিবর্তন প্রতিরোধ সম্মিলিত পরিষদ।

হিন্দুদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির জন্য মহিলা পরিষদসহ বেশ কিছু মহল এ আইন পরিবর্তনে উঠে পড়ে লেগেছে বলে দাবি করেন তারা।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটি এসব কথা বলে। তাদের দাবির সঙ্গে প্রায় ৪০টি সংগঠন একাত্মতা প্রকাশ করেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, সনাতনী সমাজে বিবাহ চুক্তি নয়। এটি একটি পবিত্র ব্রত। বিবাহের মাধ্যমে স্বামী-স্ত্রী শাস্ত্রবিধি ও হিন্দু আইন অনুযায়ী অবিচ্ছেদ্যভাবে একাত্ম হয়ে যান। তারা পরিবারের সম্পদ-সম্পত্তিও যৌথভাবে ভোগ করে থাকেন। যুগ যুগ ধরে শাস্ত্রীর বিধানের ঐশীবন্ধনে হিন্দু সম্প্রদায়ের তথা সনাতনী সমাজের পরিবারগুলো শান্তিময়-ভারসাম্যপূর্ণ অবস্থায় চলমান। কতিপয় এনজিওসহ একটি বিশেষ মহলের কারসাজিতে তা বিনষ্ট করা এবং বাংলাদেশকে অচিরেই হিন্দুশূন্য করার ষড়যন্ত্র চলছে।

কতিপয় এনজিও ও সংগঠন হিন্দু আইন পরিবর্তনের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে, তারা হিন্দুদের প্রতিনিধিত্ব করে না বলে দাবি করেন বক্তারা।

বক্তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বাংলাদেশের শান্তিপ্রিয় সনাতনী সমাজ হিন্দু আইন পরিবর্তন চায় না।

হিন্দু আইন পরিবর্তন প্রতিরোধ সম্মিলিত পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট ড. জে. কে পালের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এমআইএস/এমএইচআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]