নারীদের বাদ দিয়ে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের সুবিধা অর্জন সম্ভব নয়

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪৫ এএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, কর্মক্ষম জনশক্তির অংশ নারীদের বাদ দিয়ে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের সুবিধা অর্জন সম্ভব নয়। গার্হস্থ্য অর্থনীতি থেকে জাতীয় অর্থনীতি পর্যন্ত নারীদের সম্পৃক্ত করতে হবে। আন্তর্জাতিক শ্রমবাজারেও নারীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করতে হবে।

এসপিসিপিডি প্রকল্পের আওতায় মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সংসদ ভবনস্থ শপথ কক্ষে আয়োজিত ‌‘পলিসি ডায়ালগ অন এসিলারেটিং ফিমেল লেবার ফোর্স পার্টিসিপেশন টু রিপ ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে স্পিকার এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, নারী উন্নয়নে সরকার ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহণ করলেও শ্রমবাজারে অংশগ্রহণে নারীরা এখনো পিছিয়ে আছে। প্রতিবন্ধকতার জায়গাগুলো চিহ্নিত করে তা দূরীকরণে উদ্ভাবনী সমাধান খুঁজতে হবে। শ্রমবাজারে নারীদের জন্য আরও সুযোগ তৈরিতে সবার সম্মিলিত প্রয়াস প্রয়োজন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আইন-নীতি এবং যথাযথ কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের মাধ্যমে নারীর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সরকার কাজ করছে। উপজেলা পর্যায়ে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদ রাখা হয়েছে, যা তৃণমূল পর্যন্ত নারীর ক্ষমতায়নকে নিশ্চিত করেছে। নারীদের সক্ষমতাকে যথাযথভাবে কাজে লাগাতে সমাজের সবাইকে সচেষ্ট হতে হবে।

সংসদ সচিবালয়ের সচিব কে এম আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান এমপি বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে ইউএনএফপিএ বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ ড. আশা টর্কেলসন, উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি, ফখরুল ইমাম এমপি, আবিদা আনজুম মিতা এমপি, সৈয়দা রুবিনা আক্তার এমপি, রুমানা আলী এমপি বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এইচএস/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]