বিধি-নিষেধ মেনেই ব্যবসা করবে ক্যাবল অপারেটররা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:২৩ পিএম, ০৫ অক্টোবর ২০২১

আইন অনুযায়ী দেশে বিদেশি চ্যানেলগুলোর বিজ্ঞাপনমুক্ত (ক্লিনফিড) সম্প্রচার বাস্তবায়ন গত ১ অক্টোবর থেকে কার্যকর হয়েছে। এরপর গতকাল ক্লিনফিড দেওয়া বিদেশি ২৪ চ্যানেল চালাতে কোনো বাধা নেই বলে জানান তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তবে কেবল অপারেটররা বলছেন, ক্লিনফিড বাস্তবায়নের ফলে সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে তাদের, ফলে সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করে আরেও সময় দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে তারা। একইসঙ্গে সরকারের বিধি-নিষেধ মেনেই ব্যবসা করার কথা জানিয়েছে কেবল অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব)।

জানা গেছে, আজ (মঙ্গলবার) বিকেলে টেলিভিশন ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের (অ্যাটকো) সঙ্গে বৈঠকে বসছে কোয়াব নেতৃবৃন্দ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোয়াবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এসএম আনোয়ার পারভেজ জাগো নিউজকে বলেন, ক্লিনফিড বাস্তবায়নকারী ২৪টি চ্যানেলকে ছাড় দিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়। মাত্র তো তিন-চারদিন হলো, এখনই এটা নিয়ে বলা টাফ। সরকার যখন যে বিধি-নিষেধ দেবে সেটা মেনেই আমাদের ব্যবসা করতে হবে। সরকারের বাইরে গিয়ে যত টাফই হোক আমরা কিছু করতে পারি না। সুতরাং আমরা একটু অপেক্ষা করি, দেখি সাবস্ক্রাইবাররা বিষয়টি কীভাবে নেয় কিংবা এর মধ্যে যদি কোনো সলিউশন বের হয়। যেহেতু চ্যানেল এখন বন্ধ হয়েছে, ব্রডকাস্টাররা যদি মনে করে হয়তো আবার পূর্বের অবস্থায় বিজ্ঞাপনবিহীণ অবস্থায় দেবে। হয়তোবা সেভাবে আবার আসতেও পারে। আমরা অপেক্ষা করি। সেজন্য আমরা কোনো আল্টিমেটাম দেইনি। সময় হোক, দেখা যাক।

তিনি বলেন, মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের এখনো কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। আজ বিকেলে অ্যাটকোর সঙ্গে একটি বৈঠক আছে। যেহেতু অ্যাটকো আমাদের পার্ট, আমরাও তাদের পার্ট। কারণ তাদের চ্যানেলগুলো দেখা যাচ্ছে আমাদের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে। সেই জিনিসগুলো নিয়েই কথা বলবো কীভাবে টিকে থাকা যায়। আমরা না থাকলে ওনাদের চ্যানেলগুলো ঘরে ঘরে পৌঁছানো ডিফিকাল্ট (কষ্টকর)। এই অবস্থায় আমরা কীভাবে আগাতে পারি সে বিষয়েই আমরা আলোচনা করবো। কারণ আমরা একে অপরের পরিপূরক। সবাই নিজ নিজ জায়গা থেকে যুদ্ধ করছি, টিকে থাকার লড়াই করছি।

এদিকে আজ সচিবালয়ে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, আগামীকাল (বুধবার) থেকে আবার দেশের বিভিন্ন জায়গায় যে সমস্থ চ্যানেল ক্লিনফিড আসা সত্ত্বেও চালানো হচ্ছে না, সেটির জন্য মোবাইল কোর্ট চালানো হবে। অন্যান্য শর্ত যদি কেউ না মানে, তাহলে মোবাইল কোর্টের আওতায় তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আইএইচআর/ইএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]