আমিরাতগামীদের নির্ধারিত সময়ের আগে বিমানবন্দরে না যাওয়ার পরামর্শ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৩:৪৭ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০২১

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতগামী যাত্রীদের বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ ও সিভিল এভিয়েশনের নির্দেশনা সঠিকভাবে মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র ও নন কমিউনিকেবল ডিজিজ কন্ট্রোল প্রোগ্রামের লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ রোবেদ আমিন।

তিনি বলেছেন, ফ্লাইট ছাড়ার ছয় ঘণ্টা আগে করোনার নমুনা পরীক্ষা করার নিয়ম রয়েছে। ফলে ছয় ঘণ্টা আগে না গিয়ে বেশি সময় আগে গেলে গোলমেলে অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে। তিনি আমিরাতগামী যাত্রীদের নির্ধারিত সময়ে, নির্দিষ্ট প্রবেশপথে গিয়ে করোনার নমুনা দেওয়ার অনুরোধ জানান।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কর্তৃক ভার্চুয়াল স্বাস্থ্য বুলেটিনে তিনি এ আহ্বান জানান।

অধ্যাপক ডা. রোবেদ আমিন বলেন, আমিরাতগামী যাত্রীদের ফ্লাইট ছাড়ার ছয় ঘণ্টা আগে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষার জন্য বিমানবন্দরে ছয়টি প্রতিষ্ঠান আরটি পিসিআর ল্যাবরেটরি স্থাপন ও কার্যক্রম চালাচ্ছে। ১০টি বুথের মাধ্যমে সার্বিক কার্যক্রম সুচারুভাবে চলছে। তবে বিমানবন্দরে ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ ও সিভিল এভিয়েশনের। তাই বেশি আগে প্রবেশ করে জটলা করলে বিশৃঙ্খলা তৈরি হয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আমিরাতগামী যাত্রীদের ফ্লাইট ছাড়ার ছয় ঘণ্টা আগে নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। গতকাল মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) পর্যন্ত ২০ হাজারের বেশি যাত্রী নমুনা পরীক্ষা করে আমিরাত গেছেন। তাদের ৯৪ শতাংশই প্রবাসী কর্মী।

অধ্যাপক ডা. রোবেদ আমিন জানান, করোনা সংক্রমণরোধে গত দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে বিমান, স্থল এবং সমুদ্রবন্দর দিয়ে আগত যাত্রীদের হেলথ স্ক্রিনিং করা হচ্ছে। সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় বিভিন্ন বন্দর দিয়ে আগত ৭ হাজার ৭১৮ জন যাত্রীর স্ক্রিনিং করা হয়। এ নিয়ে করোনাকালে বিমান, স্থল, সমুদ্র ও রেলস্টেশন দিয়ে আগত সর্বমোট ২৮ লাখ ৭৮ হাজার ৬৮৩ জনকে স্ক্রিনিং করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এমইউ/কেএসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]