সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের অপচেষ্টা প্রতিহত করার আহ্বান

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩৩ পিএম, ১৪ অক্টোবর ২০২১

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের অপচেষ্টা প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস)।

বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সংগঠনটির নির্বাহী পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা রোকেয়া কবীর স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, কুমিল্লার নানুয়াদিঘির পাড়ের একটি পূজামণ্ডপে সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক ঘটনাটি আমাদের স্তম্ভিত করেছে। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

বিবৃতিতে বলা হয়, এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে আমাদের মনে হয়েছে ঘটনাটি একটি পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অংশ। ওই ঘটনাকে ঘিরে অপপ্রচার চালিয়ে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর প্রধান ধর্মীয় উৎসব চলাকালে একটি মহল দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। ঘটনার পর থেকে সর্বত্র থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে এবং এরই মধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে উৎসবের প্রাণচাঞ্চল্য।

বলা হয়েছে, উদ্বেগের বিষয় হলো- সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘটনার ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও নোয়াখালীতে অনাকাঙ্ক্ষিত এবং হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। সরকারের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও আমরা জানতে পেরেছি। এর পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষ তৎপরতা কাম্য। এ বিষয়ে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সচেতন নাগরিকদেরও সতর্ক থাকা জরুরি, যাতে কেউ উস্কানি দিয়ে ঘটনাটি আরও বাড়িয়ে তুলতে না পারে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ধর্মীয় সম্প্রীতি বিনষ্ট হলে যারা বিভিন্নভাবে লাভবান হয়, যারা সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর সমান অধিকারে বিশ্বাস করে না, এ ষড়যন্ত্রের পেছনে তাদের হাত থাকতে পারে। আগেও এরকম ঘটনা ঘটেছে এবং মানুষ কম-বেশি জানে, কারা এসব ঘটায়। কাজেই এ ঘটনায় প্রকৃত দোষীদের শনাক্ত করে শাস্তির আওতায় আনা, ঘটনার রেষ ছড়াতে না দেওয়া ও এ ধরনের ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে না ঘটে সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে গণতন্ত্রমনা জনগণকে এই অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি।

এইচএস/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]