বাংলাদেশ হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সবার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৩২ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০২১

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘কুমিল্লায় যে ঘটনাটি ঘটেছে আমরা প্রথম থেকেই বলেছি- এটি কেউ উদ্দেশ্যমূলকভাবে ঘটিয়েছে। বাংলাদেশের কোনো ধর্মপ্রাণ মানুষ, সে মুসলমান হোক আর খ্রিস্টান হোক কিংবা হিন্দু, তারা ধর্মান্ধ নয়, তারা ধর্মভীরু, যার ধর্ম সে পালন করে।’

রোববার (১৭ অক্টোবর) শহীদ শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত ‘শিশুদের জন্য নিরাপদ বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ। এদেশে প্রত্যেক ধর্মের মানুষ সমানভাবে বসবাস করে। আমরা সবাইকে নিয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। এদেশ মুসলিম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সবার। এটি অসাম্প্রদায়িক চেতনার দেশ আমরা মনে করি ও হৃদয়ে ধারণ করি বলেই আমাদের গতি অপ্রতিরোধ্য।

jagonews24

‘কোনো ধর্মের মানুষ অন্য ধর্মের পবিত্র গ্রন্থকে এভাবে অবজ্ঞা করবে সেটা এদেশের মানুষ বিশ্বাস করে না। এর পিছনে কী কারণ আছে অবশ্যই আমরা তা খুঁজে বের করবো এবং তারপরেই আপনাদের জানাবো। যারাই এটি ঘটিয়েছেন তাদের উদ্দেশ্য কখনো সফল হবে না। যেহেতু তদন্ত চলছে এই মুহূর্তে আমি আর বেশি কিছু বলবো না। অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আমরা যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেবো।’

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিরা চেয়েছিল বাংলাদেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে। তারা পরিবারের একটি সদস্যকেও বেঁচে থাকতে দিতে চায়নি। তারা জানে যদি কেউ বেঁচে থাকে তাহলে তাদের সমস্যার মুখে পড়তে হবে। আমরা দেখতেই পারি বঙ্গবন্ধুর রক্ত যেখানেই গেছে সেখানেই গৌরব অর্জন করেছে। তার কন্যা আজ দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তার দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয় বাংলাদেশকে একটি ডিজিটাল দেশ হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করছেন। পুতুল অটিজম সম্পর্কে গবেষণা করে বিশ্বে আলোচনা সৃষ্টি করেছেন, টিউলিপ সিদ্দিকি লন্ডনের মতো জায়গায় সংসদ সদস্য হয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর রক্ত যেখানেই গেছে সেখানেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান, সাবেক আইজিপি ও কলামিস্ট এ কে এম শহীদুল হক, দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত ও জাগো নিউজের সহকারী সম্পাদক ও কলামিস্ট ড. হারুন রশীদ প্রমুখ।

এএএম/এআরএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]