সমন্বিত ভবনে মিলবে সরকারি সব সেবা: চট্টগ্রাম ডিসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫৯ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০২১

চট্টগ্রামে নির্মাণ হচ্ছে ‘সমন্বিত সরকারি ভবন’। এই ভবনের কাজ শেষ হলে এক ছাদের নিচেই সরকারি সব সেবা মিলবে। 

এমনটিই জানিয়েছেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মমিনুর রহমান।

রোববার (১৭ অক্টোবর) জেলার উন্নয়ন সভা শেষে এ কথা জানান তিনি। ভবনটি নির্মাণ হচ্ছে চট্টগ্রাম নগরের চান্দগাঁও থানার হামিদচর এলাকায়।

জেলা প্রশাসক বলেন, হামিদচরে কর্ণফুলী নদীর তীর ঘেঁষে ৭৬ একর জায়গায় সমন্বিত সরকারি ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হচ্ছে। ভবনটির নির্মাণ কাজ শেষ হতে চার বছর লাগতে পারে। প্রয়োজনে আরও ৩৬ একর জায়গা নির্ধারণ করে রাখা হয়েছে। সব মিলিয়ে রয়েছে ১১০ একর জায়গা। চলতি মাসের শেষের দিকে সমন্বিত মাল্টিস্টোরেড ভবনের নকশা অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিপরিষদে যাবে।

সমন্বিত ভবনের নির্মাণ কাজ শেষ হলে পরীর পাহাড় থেকে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়সহ অন্যান্য সব সরকারি অফিস সেখানে স্থানান্তর হবে বলে জানান মোহাম্মদ মমিনুর রহমান।

তিনি বলেন, তখন একই ছাদের নিচে সব সরকারি সেবা মিলবে। এক জায়গায় সব অফিস থাকলে একদিকে জনগণের ভোগান্তি কমবে, অন্যদিকে সময়ও বাঁচবে। এছাড়া চট্টগ্রামের ৩৩টি সরকারি অফিস আছে যেগুলো জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। সেগুলোকে ওই ভবনে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। অফিসগুলো হবে পরিবেশসম্মত ও সেবা উপযোগী।

চট্টগ্রামে যে সব উন্নয়ন কাজ চলমান, সেগুলো যাতে দৃষ্টিনন্দন ও মানসম্মত হয় সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান ডিসি। যেসব সরকারি সম্পত্তি বেদখল হয়েছে, সেগুলোর তালিকা করে পর্যায়ক্রমে উদ্ধার করা হবে বলেও জানান তিনি।

করোনাভাইরাসের বিষয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, সরকারের প্রচেষ্টায় চট্টগ্রামে করোনার সংক্রমণ শূন্য দশমিক ৬ শতাংশে নেমে এসেছে। আমরা সবাই সচেতন থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে অচিরেই মহামারি থেকে মুক্তি পাবো।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আসম জামশেদ খোন্দকারের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাব্বির ইকবাল, জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মাসুম ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার একেএম সরোয়ার কামাল দুলু প্রমুখ।

মিজানুর রহমান/জেডএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]