আগামী প্রজন্মের জন্য নিরাপদ পৃথিবী গড়তে হবে: প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৭ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০২১

আগামী প্রজন্মের সন্তানদের জন্য নিরাপদ ও বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ে তোলার জন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) বিকেলে “শেখ রাসেল দীপ্ত জয়োল্লাস, অদম্য আত্মবিশ্বাস”- এ প্রতিপাদ্য নিয়ে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের উদ্যোগে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সম্মেলন কক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন ও শেখ রাসেল দিবসের আলোচনা সভায় তিনি এ আহ্বান জানান।

এ উপলক্ষ্যে সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে সমবায় অধিদপ্তরে শেখ রাসেলের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান প্রতিমন্ত্রী।

এ সময় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব মো. মশিউর রহমান এনডিসি, সমবায় অধিদপ্তরের নিবন্ধক ও মহাপরিচালক ড. মো.হারুন-অর রশিদ বিশ্বাসসহ অধিদপ্তরের সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীবনের উল্লেখযোগ্য সময় দেশের কল্যাণে দিয়েছেন। তিনি নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছিলেন বাঙালি জাতিকে মুক্ত ও স্বাধীন করার জন্য। তারই অতি আদরের পুত্রকে নৃশংসভাবে হত্যা করে এদেশের কিছু নরপিশাচ। এমনভাবে পরিবারের সবাইকে নির্মমভাবে হত্যার ঘটনা পৃথিবীতে আর নেই।

তিনি আরও বলেন, শেখ রাসেলের জন্মদিনে আমাদের প্রত্যাশা শুধু বাংলাদেশেই নয়, সমগ্র পৃথিবীতেই শিশুরা নিরাপদে বেড়ে উঠবে। আগামী প্রজন্মের সন্তানদের জন্য নিরাপদ ও বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ে তোলার জন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

সভায় শেখ রাসেলের জীবন, কর্ম এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পারিবারিক ও রাজনৈতিক জীবনাদর্শ উপস্থাপন করেন বক্তারা।

পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব মো. মশিউর রহমান এনডিসির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. রাশিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব চন্দন কুমারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

আইএইচআর/এমকেআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]