সাধারণ মানুষ কখনো তথ্য দিতে ভয় পায় না: র‌্যাব ডিজি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৩৩ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১

র‌্যাব মহাপরিচালক (ডিজি) অতিরিক্ত আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, তথ্য দিতে সেই ভয় পায়, যে অপরাধী। সাধারণ মানুষ কখনো তথ্য দিতে ভয় পায় না। অপরাধীরা যদি তথ্য দেয় তাহলে হয়তো ধরা পড়ে যাবে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর জালে আটকে যাবে, সেজন্য তথ্য দিতে ভয় পায়।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে র‌্যাব সদরদপ্তরে তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোত্তম ও সার্বিক ব্যবহার র‌্যাবের সকল ব্যাটালিয়ন ও ক্যাম্প পর‌্যায়ে বিস্তৃত করার লক্ষ্যে ‘র‌্যাবের প্রযুক্তিগত আধুনিকায়ন’ শীর্ষক কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

র‌্যাব ডিজি বলেন, আমরা প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বিস্তৃত করার উদ্যোগ নিয়েছি। এখন সার্চ দিলেই কোনো অপরাধ ও অপরাধী বা আসামি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য মিলবে। প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার যে ঘোষণা দিয়েছিলেন, তার সুফল এখন দেশের মানুষ ভোগ করছে। র‌্যাব এর উৎকর্ষতা অর্জনে কাজ করে যাচ্ছে।

র‌্যাব ডিজি বলেন, আমরা আজকে যে প্রযুক্তিগত সক্ষমতার কথা বলছি, এ প্রযুক্তির মাধ্যমে সারাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তথ্য এক জায়গাতে সংরক্ষণ করবো। আমরা এই তথ্যের সহায়তা কিন্তু ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টার-এনটিএমসি থেকে আগেও পেয়েছি। আমাদের প্রযুক্তিগত সুবিধায় অপরাধ ও অপরাধীদের তথ্য সংরক্ষণ করতে পারবো। যে তথ্যের জন্য র‌্যাব হেড কোয়ার্টার্সে বা কোনো ব্যাটালিয়নে যোগাযোগ করার প্রয়োজন নেই। অথবা এনটিএমসি’তে যোগাযোগ করার প্রয়োজন নেই। সার্চ দিলেই তথ্য পেয়ে যাবে র‌্যাবের প্রত্যন্ত অঞ্চলের কোম্পানি (সিপিসি) কর্মকর্তারাও। এ প্রযুক্তির মাধ্যমে আমরা আমাদের প্রশাসনিক কার্যক্রম ও অপারেশনাল কার্যক্রম দ্রুত সময়ের মধ্যে করতে পারবো। এর জন্য আমরা আমাদের নিজস্ব একটি তথ্যভান্ডার গড়ে তুলছি।

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন বলেন, র‌্যাব আস্থা ও বিশ্বাসের প্রতীকে পরিণত হয়েছে। পুলিশ, বিজিবি, সেনা, নৌ, বিমান ও আনসার বাহিনীসহ সাত বাহিনীর সদস্যরা মিলে জনগণের জানমালের নিরাপত্তায় কাজ করছে। দেশপ্রেম-ভালোবাসায় উদ্বুদ্ধ হয়ে কাজ করছে।

‘তরুণ প্রজন্ম যখন সঠিক পথে এগিয়ে চলে, রাষ্ট্রও তখন সঠিক পথে এগিয়ে চলে। ১৭ কোটি মানুষের ৫৬ হাজার বর্গমাইলের ছোট্ট একটা দেশ। বিবেক দ্বারা, অথবা আইনশৃঙ্খলা বিচারব্যবস্থা, আইনের শাসন দ্বারা শক্তিশালী ভূমিকা পালন করতে হয়। অপরাধীরা পার পেয়ে গেলে আমরা সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। আমাদের উচিত অপরাধী যেন পার না পায়, ভুক্তভোগীরা যেন বিচার পায়। কারো ব্যক্তিগত অপরাধের দায়, চুরি ডাকাতি ধর্ষণ, হত্যাসহ সব অপরাধ দমন করতে হবে। নইলে ১৭ কোটি মানুষ কোথায় যাবে?’

rab-2.jpg

স্বরাষ্ট্র সচিব বলেন, কোভিড পরিস্থিতির পরও অনেক ভালো আছি। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা হতে দেইনি। এটা এখন রোল মডেল। সঠিক পথে দেশ যাচ্ছে বলেই এসডিজি পদক পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরও দেশ ডিজিটাল হয়েছে, কিন্তু সাইবার স্পেস ব্যবহার করে অপরাধ বেড়েছে। কেউ অপরাধ করে পার পাবে না। ধরা পড়তেই হবে। এটাই আমাদের লক্ষ্য। সে লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি, র‌্যাবও এনটিএমসির সহযোগিতায় এগিয়ে যাচ্ছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত আইজিপি ড. মো. মইনুর রহমান চৌধুরী বলেন, র‌্যাবের প্রযুক্তিগত যে আধুনিকায়ন হচ্ছে, এর ভালো দিকটা নিয়ে সোসাইটিকে দিতে পারবো, দেশকে দিতে পারবো এই প্রত্যাশা করছি।

মইনুর রহমান বলেন, তথ্যের যদি ভুল ব্যাখ্যা হয় তাহলে খারাপটাই আমরা পাবো, ভালোটা পাবো না। আশা করছি উদ্বোধন হওয়া এই তথ্যভান্ডারকে সঠিকভাবে কাজে লাগাবে র‌্যাব।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, কুমিল্লার ঘটনার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। শিগগিরই তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

টিটি/ইএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]