বাংলাদেশে কেউ সংখ্যালঘু নয়: তথ্যমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪০ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২১

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশে কেউ সংখ্যালঘু নয়, এদেশ সবার। হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সব ধর্মের মানুষের মিলিত রক্তস্রোতে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এ দেশকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য উদাহরণ হিসেবে অম্লান রাখতে আমরা বদ্ধপরিকর।

বুধবার (২০ অক্টোবর) রাতে রাজধানীর মেরুল বাড্ডার আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে প্রবারণা পূর্ণিমা উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ ধর্মীয় তিথিতে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মহামতি গৌতম বুদ্ধের অহিংসা ও জনহিতের বাণী শান্তি ও সম্প্রীতির দিশারী।

পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় যারা পাকিস্তানের পক্ষে ছিল তারা এবং তাদের পরবর্তী প্রজন্ম এখনো রয়ে গেছে। সেই কারণেই মাঝেমধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপচেষ্টা চালানো হয়। এ জনপদে হাজার বছর ধরে আমরা যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধনে বসবাস করছি, সেই বন্ধনে আঘাত হানার অপচেষ্টা চালানো হয় সেই কারণেই।

তিনি বলেন, দুর্গাপূজাকে উপলক্ষ্য করে সেই সাম্প্রদায়িক অপশক্তি হামলা করেছে। যারা এ দেশটাকে চায় না। যারা সাম্প্রদায়িকতাকে উস্কে দিয়ে বিভিন্ন সময় রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করতে চায়। তারাই এ দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপচেষ্টা চালিয়েছে।

আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ ভদন্ত ধর্মমিত্র মহাথেরোর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া এবং আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আফজালুর রহমান বাবু বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এসময় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশন সভাপতি প্রকৌশলী দিব্যেন্দু বিকাশ চৌধুরী বড়ুয়া ও সাধারণ সম্পাদক ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয়। সভাশেষে প্রবারণার ফানুস ওড়াতে অংশ নেন অতিথিরা।

এইচএস/এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]