সুন্দরবন সুরক্ষায় বিশেষ পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার: পরিবেশমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:৫৬ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

দেশের উন্নয়ন প্রক্রিয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ত নীতি, পরিকল্পনা ও কার্যক্রম বাস্তবায়নের ফলে সুন্দরবনের যাতে ক্ষতি না হয় এবং বন সুরক্ষায় সরকার বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

তিনি বলেছেন, সুন্দরবনের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে স্ট্র্যাটেজিক এনভায়রনমেন্টাল ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান (এসইএমপি) করা হয়েছে। স্ট্র্যাটেজিক এনভায়রনমেন্টাল এসেসমেন্ট (এসইএ) প্রতিবেদন এবং এসইএমপি সুন্দরবন সংরক্ষণে সুস্পষ্ট গাইডলাইন প্রদান করেছে। উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নকারী মন্ত্রণালয় ও বিভাগসমূহের সচেতনতা ও আন্তঃসমন্বয়ের মাধ্যমে এসইএমপি অনুযায়ী দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করলে আমরা সুন্দরবন সংরক্ষণ নিশ্চিত করতে পারবো।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ও সুন্দরবনের জন্য প্রস্তুতকৃত চূড়ান্ত খসড়া স্ট্র্যাটেজিক এনভায়রনমেন্টাল এসেসমেন্ট এবং স্ট্র্যাটেজিক এনভায়রনমেন্টাল ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান বিষয়ে জাতীয় পর্যায়ের অংশীজনের সঙ্গে এ মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়।

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, স্বপ্নের পদ্মা সেতু চালু হবার পর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে বিভিন্ন ধরনের উন্নয়ন কার্যক্রম বৃদ্ধি পাবে, ফলে পরিবেশ দূষণের সম্ভাবনাও বাড়বে। তাই ইউনেস্কো ঘোষিত ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট এবং রামসার সাইট হিসেবে বিশ্বের অনন্য সম্পদ এই সুন্দরবন রক্ষায় ইতোমধ্যে খসড়া স্ট্র্যাটেজিক এনভায়রনমেন্টাল এসেসমেন্ট প্রতিবেদন এবং স্ট্র্যাটেজিক এনভায়রনমেন্টাল ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান প্রস্তুত করে ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে। সুন্দরবন সংরক্ষণের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের মতামতের ওপর ভিত্তি করে প্রতিবেদন দুটি চূড়ান্ত করা হবে।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাতীয় পর্যায়ের এ মতবিনিময় সভায় মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) আহমদ শামীম আল রাজী, প্রধান বন সংরক্ষক মো. আমীর হোসাইন চৌধুরী, এসইএ প্রকল্পের পরিচালক মো. জহির ইকবাল, সিইজিআইএস এর নির্বাহী পরিচালক মালিক ফিদা এ খান বক্তব্য রাখেন।

এছাড়াও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, এসইএ প্রণয়নে নিয়োজিত পরামর্শক ও ফোকাল পয়েন্ট, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরা নিজ নিজ সংস্থার পক্ষে মতামত ব্যক্ত করেন।

এমইউ/কেএসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]