ঘুসের বিনিময়ে টেন্ডার: খুলনা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:১৬ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

মালামাল ক্রয় সংক্রান্ত টেন্ডার বিজ্ঞপ্তি পত্রিকায় প্রকাশ না করে ঘুসের বিনিময়ে পছন্দের ঠিকাদারকে টেন্ডার পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগে খুলনা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সংস্থাটির একটি এনফোর্সমেন্ট টিম এ অভিযান চালায়।

দুদকের খুলনা জেলার সমন্বিত কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক আল-আমিনের নেতৃত্বে ও কোর্ট পরিদর্শক বিজন কুমার রায়ের সমন্বয়ে অভিযানটি পরিচালিত হয়। দুদকের জনসংযোগ দপ্তর এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

অভিযানকালে খুলনা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ একেএম মনিরুল ইসলাম দুদক টিমকে জানান, খুলনায় রক্ষিত সরকারি মেশিন ও অন্যান্য লৌহজাত মালামালের টেন্ডার ও দর-দামের জন্য প্রাথমিক দর যাচাইয়ে ৩৩টি কমিটি গঠন করা হয়। কিন্তু কোনো কমিটিই বাজারদর যাচাই করেনি। তারা নিজেরা দর প্রস্তুত করে। এছাড়া টেন্ডার সংক্রান্ত কোনো কমিটিতে তিনি ছিলেন না বলে দুদককে জানান প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ।

দুদক টিম অভিযানকালে এ সংক্রান্ত বেশকিছু নথিপত্র সংগ্রহ ও পরীক্ষা করে। দুদক জানায়, প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ জানিয়েছেন- কমিটিসমূহ মালামালের জন্য ১০ লাখ ৬০ হাজার টাকার দর প্রস্তাব করে। এ নিলাম সরকারি নিয়ম না মেনে শুধু নোটিশ বোর্ডে দেওয়া হয়। কিন্তু বিধি মোতাবেক কোনো সংবাদপত্রে তা প্রকাশ করা হয়নি। সেই নোটিশ করা হয় ঢাকার জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো থেকে। খুলনা অফিস থেকে শুধু প্রাথমিক দর প্রস্তাব করা হয়। তাছাড়া নোটিশ ও নিলাম প্রক্রিয়াসহ সব প্রক্রিয়াই তাদের ঢাকা অফিস থেকে সম্পন্ন করা হয়েছে। এ বিষয়ে খুলনা অফিস কিছুই জানে না।

দুদক জানায়, অভিযানে প্রাপ্ত ও সরবরাহ করা সব তথ্য-প্রমাণ বিস্তারিত যাচাই করে প্রয়োজনীয় সুপারিশসহ কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে কমিশন বরাবর চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করবে সংস্থাটির এনফোর্সমেন্ট টিম।

সংস্থাটি আরও জানায়, দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিট বৃহস্পতিবার পাঁচটি অভিযোগের বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন-১০৬) আসা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করে কমিশনকে অবহিত করার জন্য চারটি দপ্তরে দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিট চিঠি পাঠিয়েছে।

এসএম/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]