‘বীর নিবাস’ নির্মাণের ছবি-ভিডিও ধারণের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৭ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০২১

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ‘বীর নিবাস’ নির্মাণের সময় ছবি ও ভিডিও ধারণের নির্দেশ দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। একইসঙ্গে বাড়ি নির্মাণের সময় বরাদ্দ পাওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধার উপস্থিতি নিশ্চিত করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

রোববার (২৪ অক্টোবর) রাজধানীর অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন (বীর নিবাস) নির্মাণ প্রকল্প কার্যালয়ে প্রকল্পের আওতায় মাঠ পর্যায়ের প্রকল্প বাস্তবায়ন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ নির্দেশ দেন। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার ‘বীর নিবাস’ যথাযথ মান বজায় রেখে নির্মাণ করারও নির্দেশনা দেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ এবং মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ৩০ হাজার ‘বীর নিবাস’ নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রথমে ১৪ হাজার বীর নিবাস অনুমোদন হলেও প্রধানমন্ত্রী পরে প্রতিটিতে ১৩ লাখ ৪৩ হাজার টাকা নির্মাণ ব্যয়ে ৩০ হাজার ‘বীর নিবাস’ অনুমোদন দেন। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শেখ হাসিনার আন্তরিক ভালোবাসার প্রতিফলন হচ্ছে ‘বীর নিবাস’।

মন্ত্রী বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন সহজীকরণের জন্য উপজেলাভিত্তিক বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে ‘বীর নিবাস’ নির্মাণ করা হচ্ছে। এ কমিটিতে কর্মকর্তাদের পাশাপাশি বাড়ি বরাদ্দপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাকেও রাখা হয়েছে। যাতে নিজ বাড়ির কাজ বুঝে নিতে পারেন।

প্রকৃত অস্বচ্ছল এবং সঠিক তালিকাভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধারা যাতে ‘বীর নিবাস’ বরাদ্দ পান, তা নিশ্চিত করতেও নির্দেশনা দেন মন্ত্রী।

এ সময় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের মহাপরিচালক মো. জহুরুল ইসলাম রোহেল, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কামরুন নাহার, অস্বচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন (বীর নিবাস) নির্মাণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এম ইদ্রিস সিদ্দিকী, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম মাহবুবুর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন উপজেলা থেকে আসা প্রশিক্ষণার্থী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এবং উপ-সহকারী প্রকৌশলীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/এমকেআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]