গুলশানে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ মা-ছেলে আইসিইউতে

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৪৯ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২১

রাজধানীর গুলশান-২ এ ছয়তলা আবাসিক ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় একই পরিবারের তিনজন দগ্ধ হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় ওই বাসার গৃহকর্মীও দগ্ধ হয়েছেন। তাদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন- এ এম রফিকুল ইসলাম (৩৫), তার স্ত্রী মালিহা আনহা উর্মি (৩২), তাদের শিশুসন্তান মাসরুর মো. রাফিন (২) এবং গৃহকর্মী মনি আক্তার (৩৫)।

তাদের মধ্যে উর্মি ও তার ছেলে রাফিনকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়েছে। গৃহকর্মী মনিকে এসডিইউতে রাখা হয়েছে।

jagonews24

মালিহা আনহা উর্মির শরীরের ৭০ শতাংশ এবং শিশু রাফিন ও গৃহকর্মী মনি আক্তারের শরীরের প্রায় ৩০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। এছাড়া রফিকুলের শরীরের প্রায় ২ শতাংশ দগ্ধ হয়।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন এস এম আইউব হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘গুলশান থেকে দগ্ধ চারজনকে এখানে আনা হয়। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এর মধ্যে মালিহা ও রাফিনকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। মনি আক্তারকে এসডিউতে রাখা হয়েছে।’

দগ্ধদের নিকটাত্মীয় ইমদাদুল হক জানান, ওই ভবনের দোতলার পাশ দিয়ে ইলেকট্রিক লাইন গেছে, সেখানে বৈদ্যুতিক ট্রান্সমিটার বিস্ফোরণ হয়। এতে জানালার কাচ ভেঙে আগুন ফ্ল্যাটের ভেতরে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ফ্ল্যাটে থাকা এসি ও ফ্রিজ বিস্ফোরণ হয়। বিস্ফোরণে বাড়িতে থাকা চারজনই আহত হন।

এএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]