‘দেশ ডিজিটাল হওয়ায় কোনো কিছু গোপন থাকছে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৫ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২১

দেশ ডিজিটাল হওয়ায় কোনো কিছু গোপন থাকছে না বলে মন্তব্য করেছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষ এখন নদী নিয়ে চিন্তা করছে। এটাই আমাদের সফলতা। সমগ্র বাংলাদেশের মানুষকে নদীর সঙ্গে সম্পৃক্ত করতে পেরেছি এটাই আমাদের আন্দোলনের সফলতা। আজ যেখানেই নদী দখল হচ্ছে সেই জায়গায় মানুষ প্রতিবাদ করছে। যেহেতু বাংলাদেশ ডিজিটাল হয়েছে তাই কোনো কিছু গোপন থাকছে না।’

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম হলে ‘বাংলাদেশে নদীর নাব্যতা রক্ষা ও পলি ব্যবস্থাপনার চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক এক সেমিনারে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। সেমিনারটি আয়োজন করে বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন, ঢাকা মহানগর।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আজ এই যে তেলের দাম বেড়েছে। সেখানে ৬০ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে। পৃথিবীর কোনো দেশে কী তেলের জন্য ৬০ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দেওয়া হয়। ব্রিটেনে তেলের জন্য ১৮০ টাকা দিতে হয়। এখানে সরকার ভর্তুকি দিচ্ছে বলে আমরা কমে পাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘আজ অনেকে চালের দামের জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেন। চালের দাম বাড়লে লাভবান হন আমাদের কৃষকরা। তাই আমাদের প্রধানমন্ত্রী কৃষকের পক্ষে।’

তিনি বলেন, ‘গতকাল আমি ইউকে থেকে এসেছি। আমার মন ভরে গেছে। সেখানকার ব্যবসায়ীরা যখন বলছেন বাংলাদেশের অর্থনীতি পৃথিবীতে এখন নাড়া দিচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করছেন। পৃথিবীর বর্তমান চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়ে অর্থনীতিকে এখানে নিয়ে গেছে। কারণ ভিশন থাকা দরকার। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর ভিশন রয়েছে।’

দেশের অর্থনীতি সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ২৭০০ ডলারে চলে গেছে। আমাদের বিনিয়োগ বেড়েছে। রপ্তানি আয় বেড়েছে, আমাদের অর্থনীতি এখন কত বড় অর্থনীতি, বাংলাদেশের বাজেট এখন ছয় লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে।’

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশের নদীগুলো দখল হয় গেছে এটাই বাস্তবতা। নদী তো একদিনে দখল হয়নি। ধীরে ধীরে হয়েছে। নদীর পাড়ে ১০ তলা বিল্ডিং সরানোটা চ্যালেঞ্জের বিষয়। আমাদের অনেকে আহত হয়েছেন এই কাজগুলো করতে গিয়ে।’

নদী সমস্যা নিরসনে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমাদের যে জট, সে জট দ্রুত সরবে না। আমরা শুধু বলছি দ্রুত করতে হবে। এটা দ্রুত করার বিষয় না। অনেক চ্যালেঞ্জ আছে। সেই চ্যালেঞ্জগুলো বর্তমান সরকার গ্রহণ করছে। আপনারা বুঝতে পারছেন, সরকার চোখ-মুখ বন্ধ করে বসে নেই। সরকার প্রস্তুতি নিচ্ছে নদীকে আবার আগের জায়গায় নিয়ে যেতে।’

সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অখিল কুমার বিশ্বাস, সিইজিআইএস’র সিনিয়র অ্যাডভাইজার ড. মমিনুল হক সরকার, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার সাদাত, সভাপতি আনিসুর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক মহসীনুল করিম লেবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এএএম/এআরএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]