১ ডিসেম্বর থেকে রুট পারমিটবিহীন বাসের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৯ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২১

গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরানোর দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে রাজধানীতে রুট পারমিটবিহীন বাসের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

রোববার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে ডিএসসিসির নগর ভবনের বুড়িগঙ্গা হলে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৯তম সভা শেষে মেয়র সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ঢাকা শহরের গণপরিবহনে বিচ্ছৃঙ্খলা রয়েছে। সেজন্য আমরা আরও কঠোর হবো। আমরা দেখেছি, রুট পারমিট নেওয়া হয় একটি যাত্রাপথে, কিন্তু সেই যাত্রাপথে বাস না চালিয়ে চালানো হয় অন্য যাত্রাপথে। এখন থেকে যৌথ অভিযানের আওতায় আমরা সেসব বাসের বিরুদ্ধে কার্যক্রম নেবো।

তিনি বলেন, এক রুটের বাস অন্য রুটে পরিচালনা করা যাবে না। যে বাস যে যাত্রাপথে রুট পারমিট নিয়েছে সে পথেই সেই বাস পরিচালনা করতে হবে। অন্যথায় সেই বাস চলবে না। আমরা এখন অত্যন্ত কঠোর। আমরা ঢাকা শহরের গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনবোই আনবো।

১ ডিসেম্বর থেকে রুট পারমিটবিহীন বাসের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান

মেয়র বলেন, যে এক হাজার ৬৪৬টি রুট পারমিটবিহীন বাস চিহ্নিত করা হয়েছে, আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে সেগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করবো। তা হবে আরও কঠোর অভিযান। রুট পারমিটবিহীন যেসব বাস আমরা পাবো, শুধু জরিমানা না, সেগুলো জব্দ করবো। এবং সেগুলো ধ্বংস করবো। যাতে এ গাড়িগুলো সড়কে আসতে না পারে।

সভায় বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথোরিটির (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার, বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, রাজউক চেয়ারম্যান এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহম্মদ, ঢাকা মেট্রোপলিটনের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবুর রহমান, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ ও গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিনসহ কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এমএমএ/এমকেআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]