আন্দোলনে ‘ইন্ধন’ আছে কি না জানতে বাবাসহ ছাত্রী থানায়

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৫ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২১
নিরাপদ সড়কের দাবিতে ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে শিক্ষার্থীদের অবস্থান/ছবি: জাগো নিউজ

নিরাপদ সড়কের দাবিতে দিনভর রাজধানীর ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে আন্দোলনে অংশ নেওয়া এক ছাত্রীকে তার বাবাসহ মোহাম্মদপুর থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।

রোববার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তেজগাঁও বিভাগের মোহাম্মদপুর জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মৃত্যুঞ্জয় দে সজল।

তিনি বলেন, আজ ধানমন্ডি ২৭ নম্বর এলাকায় সকাল থেকে আন্দোলন করছিল একদল শিক্ষার্থী। দুপুরে ওই ছাত্রী সেখানে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মাঝে খাবার পরিবেশন করে। একই সময় আরেক ছেলে ওই ছাত্রীর কাছে বিকাশ নম্বর চায় ও টাকা পাঠানোর কথা জানায়।

বিষয়টি পুলিশের গোয়েন্দা নজরদারিতে এসেছে। এই আন্দোলন ঘিরে অন্য কারও সংশ্লিষ্টতা বা লেনদেনের বিষয় কি না তা খতিয়ে দেখতেই ওই ছাত্রীকে তার বাবাসহ থানায় ডেকে নেওয়া হয়েছে। আন্দোলনে অন্য কারও ইন্ধন কিংবা যোগসাজশ রয়েছে কি না এ ব্যাপারে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এডিসি মৃত্যুঞ্জয় দে সজল আরও বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মাঝখান থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে। তার নাম হাফিজুর রহমান। তার কাছ থেকে কিছু ইনজেকশন ও জাল টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। হাফিজুর রহমানকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এর আগে গতকালও হাফিজুরকে ধানমন্ডি ২৭ এলাকায় দেখা যায়। তখন তিনি শিক্ষার্থী ও পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে নিজেকে চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দিয়েছিলেন। আজ ঘটনাস্থল থেকে আটকের সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা হাফিজুর রহমানকে ঘিরে ধরে। এসময় হাফিজুর রহমান আন্দোলনরত ওই ছাত্রীর কাছ থেকে বারবার বিকাশ নম্বর চাচ্ছিলেন। হাফিজুর ওই ছাত্রীর পূর্বপরিচিত নাকি তাকে ব্ল্যাকমেইল করতে চাচ্ছিলেন, নাকি আন্দোলন ঘিরে আটক হাফিজুরের অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল সেটি খতিয়ে দেখতেই ওই ছাত্রীকে থানায় ডেকে নেওয়া হয়েছে।

গতকাল ওই ছাত্রী নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারীদের পক্ষে ৯ দফা দাবি উত্থাপন করে বক্তব্য ও বিবৃতি পাঠ করেছিল।

টিটি/এআরএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]