লেভেলক্রসিংয়ে ছিল না গেটম্যান, বেপরোয়া বাসের ধাক্কায় ঘটে দুর্ঘটনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৬ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

চট্টগ্রামের নাজিরহাট থেকে একটি ডেমু ট্রেন নগরের বটতলী রেলস্টেশনের দিকে আসছিল। ট্রেনটি যখন নগরের জাকির হোসেন রোডের লেভেলক্রসিং পার হচ্ছিল, তখন সেখানে ছিল না কোনো গেটম্যান। তবে ওই এলাকায় কর্তব্যরত ট্রাফিক কনস্টেবল মো. মনির হোসেন হাত দিয়ে দুপাশের গাড়ি আটকে রাখেন।

এদিকে, ট্রেনটি ক্রসিং পার হওয়ার সময় জিইসি মোড় থেকে আসা একটি বেপরোয়া বাস হঠাৎ একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও টেম্পুকে ধাক্কা দেয়। এতে গাড়ি দুটি রেললাইনের ওপর চলে যায় এবং ট্রেনের ধাক্কায় গাড়ি দুটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এ দুর্ঘটনায় ওই পুলিশ কনস্টেবলসহ দুজন নিহত হন।

শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটা ওই দুর্ঘটনার বিষয়ে একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

ওই দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন- ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল মো. মনির হোসেন (৪০) ও সৈয়দ বাহাউদ্দিন আহমেদ (৩০)। দুর্ঘটনায় আবুল হোসেন (৬৫) ও জমির হোসেন (৪৮) নামে দুই ব্যক্তি গুরুতর আহত হন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

চমেক পুলিশ ফাঁড়ি সূত্রে জানা গেছে, নিহত পুলিশ কনস্টেবল মনির নগর ট্রাফিক উত্তর জোনে কর্মরত ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার খোয়াজপুর এলাকায়। এছাড়া নিহত বাহাউদ্দিন নগরের পাঁচলাইশ থানার হামজারবাগ এলাকার বাসিন্দা এবং তার বাবার নাম সৈয়দ সোহরাব হোসেন।

পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ও চমেক পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাদেকুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ঝাউতলা রেলস্টেশনে ট্রেন-বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে আহত চারজনকে চমেক হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে দুজনকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেছেন। এছাড়া একই ঘটনায় আহত দুজনের অবস্থা বেশ আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

পাহাড়তলী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ খাজা এনাম এলাহী জাগো নিউজকে বলেন, ডেমু ট্রেনটি স্বাভাবিকভাবে রেলক্রসিং পার হচ্ছিল। এসময় ৭ নম্বর রোডের একটি বাস বেপরোয়া গতিতে জিইসি মোড় থেকে একে খান মোড়ের দিকে যাচ্ছিল। একপর্যায়ে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি অটোরিকশা ও টেম্পুকে ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশা ও টেম্পুটি রেললাইন ওপরে চলে যায় এবং ট্রেনের ধাক্কায় গাড়ি দুটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়।

এদিকে কনস্টেবল মনির হোসেনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রাম নগর ট্রাফিক পুলিশ উত্তর জোনের উপ-কমিশনার (ডিসি) আলী হোসেন। তিনি বলেন, কর্তব্যরত অবস্থায় পুলিশ সদস্য মনিরের মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। আমি তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

মিজানুর রহমান/কেএসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]