ফায়ার সার্ভিসের আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবস উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩৩ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১

আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবস-২০২১ উপলক্ষে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠান গতকাল রোববার (০৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত ফায়ার সার্ভিস ট্রেনিং কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (০৬ ডিসেম্বর) ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের গণমাধ্যম শাখার দায়িত্বরত কর্মকর্তা মো. রায়হান জাগো নিউজকে এ তথ্য জানান।

আয়োজিত অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল- শোভাযাত্রা, র্যাফেল ড্র, আলোচনা সভা, নির্বাচিত স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মাননা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সে পরিচালক (অপা. মেইন.) ও পরিচালক (প্রশিক্ষণ, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন)-এর অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা লে. কর্নেল জিল্লুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, ফায়ার সার্ভিস কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লে. কর্নেল (অব.) সিদ্দিক মো. জুলফিকার রহমান, অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক, ট্রেনিং কমপ্লেক্সের অধ্যক্ষসহ বিভিন্ন পদমর্যাদার কর্মকর্তা-কর্মচারী।

ওইদিন সকাল ৯টায় ভলান্টিয়ারদের রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়। সারাদেশ থেকে আসা দুই শতাধিক ভলান্টিয়ার অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সকাল ১০টায় শুরু হয় বর্ণিল শোভাযাত্রা। শোভাযাত্রাটি মিরপুর গোল চত্বর থেকে মিরপুর ১ নম্বর হয়ে ফের ট্রেনিং কমপ্লেক্সে এসে শেষ হয়। এরপর ভলান্টিয়ারদের মধ্যে র্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়। বিজয়ী ৩০ জনের হাতে তুলে দেওয়া হয় একটি করে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র (ফায়ার এক্সটিংগুইশার)।

নামাজ ও মধ্যাহ্নভোজের বিরতির পর শুরু হয় আলোচনা সভা। আলোচনা অনুষ্ঠানের একপর্যায়ে ফায়ার সার্ভিসের অপারেশনাল কাজে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় সারা দেশ থেকে নির্বাচন করা মোট ১৫ জন ভলান্টিয়ারের নাম ঘোষণা করা হয়। এসময় তাদের হাতে সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়। সম্মাননাপ্রাপ্তদের হাতে সনদপত্র তুলে দিয়ে উত্তরীয় পরিয়ে দেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। সম্মাননাপ্রাপ্তদের মধ্যে খিলগাঁওয়ের ভলান্টিয়ার সুলতান আরা বেগম শিল্পী ও সিলেটের দক্ষিণ সুরমা ভলান্টিয়ার আব্দুল্লাহ মো. আদিল তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসাইন সব স্বেচ্ছাসেবককে তাদের অনন্য অবদানের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানান। তিনি ভবিষ্যতে এ ধরনের আয়োজন আরও বর্ণিল ও জাঁকজমকপূর্ণভাবে আয়োজন করা হবে বলে আশ্বাস দেন। রেডিও-টেলিভিশনের শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দিনব্যাপী কর্মসূচির সমাপ্তি হয়।

টিটি/এমকেআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]