চট্টগ্রামে রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত: বাসচালক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৪৩ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

চট্টগ্রামের খুলশী থানার জাকির হোসেন রোডে ক্রসিংয়ে দাঁড়িয়ে থাকা সিএনজিতে পেছন থেকে ধাক্কা দেয় বেপরোয়া একটি বাস। বাসটি সিএনজিকে ধাক্কা দিয়ে নিয়ে ডেমু ট্রেনের ওপর গিয়ে পড়ে।

এতে পুলিশ সদস্যসহ অন্তত তিনজন নিহত হয়। মর্মান্তিক ওই ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত বাসচালক মো. শহিদুল আলমকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে র্যাব।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে মিরসরাই বেড়িবাঁধ বঙ্গোপসাগর উপকূলীয় এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম র্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) ফ্লাইট ল্যাফটেন্যান্ট নিয়াজ মোহাম্মদ চপল।

তিনি বলেন, ‘গ্রেফতার বাসচালক শহিদুল খুলশী রেল দুর্ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত। তিনি ওই ঘটনায় রেলওয়ে থানায় দায়ের হওয়া মামলার প্রধান আসামি। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। বুধবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।’

জানা গেছে, গত ৪ ডিসেম্বর সকালে নাজিরহাট থেকে একটি ডেমু ট্রেন নগরের বটতলী রেল স্টেশনের দিকে যাচ্ছিল। ট্রেনটি যখন জাকির হোসেন রোডের ক্রসিং পার হচ্ছিল, তখন সেখানে ছিলেন না গেটম্যান আলমগীর। তবে ওই এলাকায় কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল মো. মনিরুল ইসলাম হাত দিয়ে দুপাশের গাড়ি আটকে রাখেন।

ট্রেনটি রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় জিইসি মোড় থেকে আসা একটি বাস সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও টেম্পুকে ধাক্কা দেয়। এতে গাড়ি দুটি রেললাইনের ওপর চলে যায় এবং ট্রেনের ধাক্কায় গাড়ি দুটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়।

ওই ঘটনায় দায়িত্বরত ট্রাফিক কনস্টেবল মনিরসহ মোট তিনজন নিহত হন। রেললাইনের পাশের দুর্ঘটনা হওয়ায় আইন অনুযায়ী মামলাটি দায়ের হয় চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানায়।

ঘটনার পরদিন (রোববার) দিবাগত রাতে পাহাড়তলী এলাকা থেকে রেল দুর্ঘটনার আরেক অভিযুক্ত গেটম্যান আশরাফুল আলমগীর ভূঁইয়া গ্রেফতার হয়। আদালতের আদেশে বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

মিজানুর রহমান/এএএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]