পরিবার পরিকল্পনা মাঠকর্মীদের ৪ দফা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪৫ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

চাকরি স্থায়ীকরণ ও ন্যায্য গ্রেড স্কেলে বেতনসহ চার দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিবার পরিকল্পনা মাঠ কর্মচারী সমিতি। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটি এসব দাবি জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ পরিবার পরিকল্পনা মাঠ কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাকিরুন্নেছা সুমী বলেন, ১৯৯৬ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে এফপিআই ও এফডব্লিউএ ২৮ হাজার কর্মচারী উন্নয়ন খাত হতে রাজস্ব খাতে স্থানান্তরিত হয়। তখন থেকেই এখন পর্যন্ত ২৫ বছর ধরে ভাসমান অবস্থায় আছে। চাকরি স্থায়ীকরণ ও পদসংরক্ষণ হয়নি, নেই কোনো নিয়োগবিধি। আমরা সরকারি কর্মচারী শুধু নামমাত্র।

তিনি বলেন, উন্নয়ন খাতে বেতন দিয়ে চলে ২৮ হাজার এফপিআই এফডব্লিউএ এর রাজস্বখাতে বেতন। আমরা বর্তমান খুবই আশঙ্কায় আসছি আছি, যেকোনো সময় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় আমাদের আইনানুগভাবে বেতন বন্ধ করে দিতে পারে। দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে আমাদের দাবি-দাওয়া নিয়ে বার বার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে গেলেও তাদের উদাসিনতার কারণে আমরা সরকারের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত।

তিনি আরও বলেন, নিরূপায় হয়ে দাবি আদায়ে আমরা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হই। এরপর থেকে এফপিআই এফডব্লিউএদের পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ মৌখিকভাবে কর্মস্থলে অতিরিক্ত চাপ, হয়রানি করে যাচ্ছে। মৌখিকভাবে রিট থেকে সরে আসার জন্য হুমকি দিচ্ছে।

হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের শর্তাবলীকে তোয়াক্কা না করে একের পর এক এই ভাসমান কথিত রাজস্ব খাতে এফপিআই এফডব্লিউএ নিয়োগ দিয়ে চলছে এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ, গাজীপুর, খাগড়াছড়ি নিয়োগ কার্যক্রম অতিদ্রুত চালিয়ে যাচ্ছে।

এসময় তিনি চার দফা দাবি জানিয়ে বলেন, অতিদ্রুত নিয়োগবিধি বাস্তবায়ন করতে হবে; স্থায়ী ও যথাযথভাবে পদ সংরক্ষণ করতে হবে; চাকরিরত অধিকার আদায়ের স্বার্থে দায়েরকৃত নিয়মতান্ত্রিক মামলার বাদীপক্ষকে অমানবিক হয়রানি বন্ধ করতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে সমিতির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এমআইএস/এমআরএম/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]