কুমিল্লায় বিস্ফোরণে দগ্ধ ৫ জন শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫৯ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে গ্যাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ পাঁচজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে আনা হয়েছে।

তারা হলেন- বেলুন বিক্রেতা আনোয়ার হোসেন (৩৫), সাইফুল ইসলাম (২২), আব্দুর রব (২৭), সাব্বির রহমান (১৪ ) ও ইমন (১৬)।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে তাদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেল ৫ টার দিকে উপজেলার বিরুলিয়া গ্রামে মেলায় ঘুরতে গিয়ে বেলুনের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ হন তারা।

দগ্ধ আব্দুর রবের দুলাভাই মো. রাসেল জাগো নিউজকে জানান, বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটার দিকে বিরুলিয়া গ্রামের একটি মেলায় আমার সবাই ঘুরতে যাই। বেলুন ফোলানোর সময় হঠাৎ এ বিস্ফোরণ ঘটে। পরে দগ্ধদের উদ্ধার করে প্রথমে কুমিল্লা হাসপাতাল নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে দগ্ধদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন পার্থ শংকর পাল জানান, কুমিল্লার একটি মেলায় বেলুন ফোলানোর সময় হঠাৎ সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ পাঁচজন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে আনোয়ার হোসেনের ১৫ শতাংশ, সাইফুল ইসলামের ৪১ শতাংশ, আব্দুর রবের ৩৫ শতাংশ, সাব্বির রহমানের ২৫ শতাংশ দগ্ধ রয়েছে। এছাড়া দগ্ধ ইমনকে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। তাদের শরীরের দগ্ধ এবং স্প্রিন্টারের আঘাত রয়েছে। তারা কেউই শঙ্কামুক্ত নয় বলেও জানান তিনি।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া জানান, দগ্ধ সবাইকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। সবার অবস্থায় শঙ্কামুক্ত নন। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।

এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]