‘বিভিন্ন দেশে উৎসবে ডিসকাউন্ট চলে, আমাদের ঈদ এলেই দাম বাড়ে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২৪ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২২

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ধর্মীয় উৎসবগুলোতে ডিসকাউন্ট চলে, আর বাংলাদেশে ঈদ এলেই দাম বাড়ে বলে উল্লেখ করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) সকালে ভোজ্যতেলের দাম বাড়ানো নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। এর আগে সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ভোজ্যতেল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি।

রমজানে দ্রব্যমূল্যের বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা কথায় কথায় আল্লাহ-খোদার কথা বলি, কাজের সময় করি উল্টোটা। তখন মানুষের ভোগান্তি হয়। সারা পৃথিবী জুড়ে ধর্মীয় অনুষ্ঠানের সময় ডিসকাউন্ট চলে। ক্রিসমাসের সময় ৩০-৩৩ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট দিয়েছে। কিন্তু আমাদের এখানে উল্টোটা, ঈদ আসলেই দাম বাড়ে।

সামনে ভোজ্যতেলের দাম কমার সম্ভাবনা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা এই মূহুর্তে বলা ঠিক হবে না। সেজন্য এক্সপার্ট আছে। আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতও তেল আমদানি করে। সেখানে দাম কতো, তাদের আজকের মার্কেটে ১৭০ বিক্রি হচ্ছে বলে শুনেছি। এমন কিছু করতে পারি না যাতে জনগণ ভোগান্তিতে পড়ে।

এসময় বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, আগামী ১৫ দিনে ভোজ্যতেলের দাম বাড়ছে না। ৬ ফেব্রুয়ারির পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে, তেলের দাম বাড়বে না কমবে।

টিপু মুনশি বলেন, আমাদের ভোজ্যতেল আমদানিকারকরা বার বার বলছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বাড়ছে। যে ক্যালকুলেশনে এটা ফিক্সআপ করি সেখানে নতুন করে ভাবার সময় এসেছে। আমার অসুস্থতার জন্য তারা অপেক্ষা করেছে। আজকের আলোচনায় তেমন কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। আমরা বলেছি, এখন যে দাম আছে তার থেকে কিছুটা হলেও কমাতে চেষ্টা করুন। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করবো। এজন্য আন্তর্জাতিক মার্কেট, ডিউটি স্ট্রাকচার সব দেখে ১৫ দিন পর বসে সিদ্ধান্ত নেবো। সামনে রমজান, রোজার ঈদও আছে। সেজন্য ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করেছি তারা স্বাভাবিকভাবে যেন এলসি ওপেন কবে। এরপর বসে একটা সিদ্ধান্ত নেবো।

টিসিবির অপারেশন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, টিসিবির অপারেশন রমজান মাসে ৪শ’ ট্রাক করি, এবার ৭শ’ থেকে ৮শ’ করছি। বিশ্ববাজারে তেলের দামটা একই রকম আছে। বিভিন্ন ফ্যাক্টর আছে, এই ১৫ দিনে যদি দেখি দাম ৫০ ডলার কমেছে সেভাবেই আমরা সিদ্ধান্ত নেবো।

আইএইচআর/জেডএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]